টিডিএন বাংলা ডেস্ক, দিল্লি : বিশ্বখ্যাত ইসলামী চিন্তাবিদ ও টেলিভিশনিস্ট ডা. জাকির নায়েকের বোন নাইলাহ্ নওশাদ নুরানী ও তার স্বামীকে ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি (এনআইএ) গত শুক্রবার সদর দপ্তর দিল্লিতে তলব করেছিল। এনআইএ সূত্রে জানা যায় মুম্বইয়ের বাসিন্দা নাইলাহ্ ও তার স্বামী নওশাদ, শুক্রবার বিকেলে রাজধানী দিল্লিতে পৌঁছান। গত বছরে নিষিদ্ধ জাকির নায়েকের সংস্থার বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত করতে গিয়ে, এতে দম্পতির কোনো সম্পর্ক রয়েছে কি না আরো খতিয়ে দেখার জন্য তদন্তকারীদের প্রয়োজনীয়তার ভিত্তিতে তাদের ডাকা হয়।

সংস্থার কর্মকর্তারা জানান, সাম্প্রদায়িক সহিংসতা ও সন্ত্রাসবাদে জড়িত থাকার অভিযোগে সদ্য নিষিদ্ধ আইআরএফ ও বেসরকারী কম্পানির প্রধান হিসেবে এই দম্পতির মধ্যে কোনো সন্দেহজনক লেনদেন থাকলে তা পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে।
এনআইএ এর একজন সিনিয়র কর্মকর্তা ডিএনএ কে এর সত্যতা স্বীকার করে বলেন, “IRF এর বিরুদ্ধে প্রমাণের জন্য এটা আমাদের রুটিন পরীক্ষা মাত্র।আমরা বর্তমানে এর সাথে সম্পর্কিত সব দিক তদন্ত করে দেখছি এবং আরো ব্যক্তিকে পরীক্ষার জন্য ডাকা হবে।”
এনআইএর মতে, পাঁচটি প্রাইভেট কোম্পানি রয়েছে যার পরিচালক ও অতিরিক্ত পরিচালক জাকির নায়েকের বোন নাইলা ও তাঁর স্বামী, পরবর্তীতে তদন্ত সংস্থা বেসরকারী কোম্পানি এবং IRF মধ্যে সংযোগের সন্ধান পায়।

তদন্তকারী সংস্থার গোপন সূত্রে খবর যে নাইলার স্বামী নওশাদ IRF এর ডিরেক্টর রুপে কাজ পরিচালনা করতেন, এই বিষয়েও তদন্তকারীরা তার সঙ্গে আলোচনা করেন।

গত বছর IRF কে একটি নিষিদ্ধ সংগঠন ঘোষণা করা হয়। পরবর্তীতে এনআইএ জাকির নায়েক ও অন্যান্যদের বিরুদ্ধে বেআইনী কার্যক্রম প্রতিরোধ আইন (UAPA) ধারা ১৮ – য় সন্ত্রাসের ষড়যন্ত্র, ধারা ১০ ও ১৩ – য় একটি বেআইনী সমিতির সদস্য ও বেআইনি কার্যক্রমের শাস্তি, এবং আইপিসি ধারা ১৫৩A – য় সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষ এর অভিযোগ দায়ের করেছে।

“IRF এর পরিচালক হিসেবে জনাব নওশাদের ক্ষমতা বা নিয়ন্ত্রণ, যা বর্তমানে তদন্তাধীন বিষয়।তদন্তকারী টিম ও দম্পতির সঙ্গে বিস্তারিত কথোপকথনে আমরা খুব বেশি কিছু অনুসন্ধান করতে সক্ষম হই নি” বলে জানান এনআইএ-র এক কর্মকর্তা।

“আইআরএফ এ অনুসন্ধানের সময় অভ্যন্তরীণ ও বিদেশী অর্থায়ন সংক্রান্ত যে তথ্য উদ্ধার করা হয় তাতে যাচাই করা হয়েছে IRF – র সঙ্গে হারমনি মিডিয়া, লংলাস্ট নির্মাণ, রাইট প্রপার্টি সলিউশন, ম্যাজেস্টিক পারফিউম ও আলফা লুব্রিকেন্টের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সংযোগ ছিল।
এনআইএ আরো জানিয়েছে গত শুক্রবারের পরীক্ষার উদ্দেশ্য ছিল ঐ সমস্ত কোম্পানি এবং IRF মধ্যে সম্পর্কের উপর আরো খোঁজ নেওয়া।
কোম্পানির রেকর্ড অনুযায়ী, ২০১৩ সালে ১২ মার্চের এপয়েন্টমেন্টে নাইলা লংলাস্ট কনস্ট্রাকশন ও রাইট প্রপার্টি সলিউশনের অতিরিক্ত পরিচালক। তার পরেও সে হারমনি মিডিয়ার পরিচালক হিসেবে নিযুক্ত।
উপরন্তু নাইলা ২০১৫ সালের ২২মে ম্যাজেস্টিক পারফিউম ও আলফা লুব্রিকেন্ট এর পরিচালক হিসেবে নিয়োগ পান।