টিডিএন বাংলা ডেস্ক: বিজেপি সরকার ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করছে। যা সংবিধানের প্রতি হুমকিস্বরূপ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর কংগ্রেস গোটা দেশের সঙ্গে অসমের সংখ্যালঘুদেরও প্রতারণা করেছে। কংগ্রেস আমাদের চিরশত্রু। এদিকে অগত ও বিজেপি রাজ্যের অসমীয়া জাতির বিপদ ডেকে এনেছে। হোযাই জেলার উদালির ফুলতলিতে নির্বাচনী সভায় শুক্রবার এভাবেই ইউডিএফ সুপ্রিমো বদ্রুদ্দিন আজমাল সংশ্লিষ্ট রাজনৈতিক দলগুলোর ক্ষুরধার সমালোচনা করেন।উদালি জেলা পরিষদের ইউডিএফ প্রার্থী বাবুল  আফসার চৌধুরি কে তালা চাবি চিহ্নে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, ‘প্রফুল্ল মহন্তের দিনে অাসামে এক লক্ষ ডি ভোটার বানানো হয়েছিল। পরবর্তী কংগ্রেস সরকারের ১৫ বছরের শাসনকালে সেই ডি ভোটারের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়ায় ৫ লক্ষে। রাকিবুল হোসেনরা আসামবাসীর সমস্যার প্রতি গুরুত্ব না দিয়ে নিজেদের সম্পত্তির পাহাড় গড়তে ব্যস্ত ছিলেন।

বিজেপি মন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মারও তুলোধানা করেন আজমল। তার কথায় হিমন্ত মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্নে বিভোর। কিন্তু তার স্বপ্ন কোনদিনই পূর্ণ হবেনা, জীবনেও তিনি মুখ্যমন্ত্রী হতে পারবেন না। তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দাড়ি, টুপি, লুঙ্গি একদমই পছন্দ করেন না। তিনি সংবিধান বিরোধী, সংবিধানের শত্রু। এই বিশ্বাসঘাতকদের পঞ্চায়েত নির্বাচনে উচিত শিক্ষা দেবেন ভোটাররা।

আজমল শুক্রবার হোজাইয়ের আশীনগর, লস্করপথার এবং  মোরাঝাড়ে নির্বাচনী সভায় অংশ নেন। যমুনামুখ বিধানসভা কেন্দ্রে মোরাঝাড় ময়দানে শুক্রবার বিকালে অনুষ্ঠিত জনসভায় পৌরহিত্য করেন মুফতী সাঈদ আহমেদ।