টিডিএন বাংলা ডেস্ক: আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত বাইবেলের ভুল ব‍্যাখ‍্যা করেছেন। “লিঞ্চিং বাইবেল থেকে এসেছে”, মোহন ভাগবতের মন্তব্য কে ‘বাইবেলের ভুল ব্যাখ্যা’ আখ্যা দিয়ে তীব্র বৃহস্পতিবার প্রতিবাদ জানাল ন্যাশনাল কাউন্সিল অব চার্চ ইন ইন্ডিয়া (এনসিসিআই)। রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের (আরএসএস) সংঘচালকের বিজয়াদশমী ভাষণের নিন্দা জানিয়ে এনসিসিআই বলেছে যে তিনি বাইবেলের ভুল উপস্থাপনা করেছেন।

এনসিসিআইয়ের সাধারণ সম্পাদক আসির আবেনেজার বলেছেন যে, এনসিসিআই আরএসএসের সঙ্ঘচালক মোহন ভাগবতের বাইবেলকে নিয়ে করা মন্তব্যের নিন্দা করছে। তিনি আরও বলেন যে, সঙ্ঘচালক বাইবেলের যে ঘটনার কথা উল্লেখ করেছিলেন বাস্তবে তা প্রকাশ করে যে, কীভাবে যিশু সেই সময়ের পুরুষতান্ত্রিক কাঠামোর শিকার এক মহিলার পাশে দাঁড়িয়েছিলেন।

নাগপুরে দশেরার একটি অনুষ্ঠানে আরএসএস প্রধান বলেছিলেন যে, লিচিং শব্দটি বাইবেল থেকে এসেছে।
আরএসএস প্রধান বলেন যে, “এই প্রসঙ্গে, বাইবেলে একটি পুরাতন গল্প রয়েছে। এর সাথে এই ধর্মের কোনও যোগসূত্র নেই তবে এমন একটি ঘটনা রয়েছে যাতে উল্লেখ আছে যে, একটি গ্রামে কয়েকজন মিলে একজন মহিলাকে পাথর মারার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। যীশু খ্রীষ্ট সেখানে পৌঁছে বললেন, ‘আপনি তাকে পাথর মারছেন কারণ তিনি পাপী। আগে নিশ্চিত হয়ে নিন, যে পাপ করেনি সে যেন প্রথমে পাথর নিক্ষেপ করে’। তখন প্রত্যেকে নিজের ভুল বুঝতে পারল।” ভাগবত জিজ্ঞাসা করেন যে, “এই ঘটনা কোথা থেকে এসেছে? এই জায়গাগুলিতে এই জাতীয় ঘটনার জন্য একটি ব্যাখ্যা রয়েছে।” এনসিসিআই উল্লেখ করেছে যে, সমস্ত লিচিংয়ের ঘটনাগুলি ধর্মীয় সংখ্যালঘু, দলিত, আদিবাসী, অর্থনৈতিকভাবে দরিদ্র এবং মহিলাদের সহ ভারতের সংবেদনশীল সম্প্রদায়গুলিকে লক্ষ্য করে করা হয়েছে। তাই এনসিসিআই সর্বোচ্চ সরকারী কর্মকর্তা এবং জাতীয় ও রাজ্য সরকারের রাজনৈতিক নেতাদের পাশাপাশি সকল রাজনৈতিক দলের নেতাদের কাছে অনুরোধ করে যাতে এ জাতীয় জঘন্য কাজ ও দায়িত্বজ্ঞানহীন প্রকাশ্য বক্তব্যের নিন্দা করা হয়, যাতে এ দেশে শান্তি ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় থাকে।”