টিডিএন বাংলা ডেস্ক  : গত বুধবার হায়দরাবাদের শাদনগরে ২৬ বছর বয়সী পশুচিকিৎসক প্রিয়াঙ্কা রেড্ডিকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা করা হয়। বৃহস্পতিবার পশুচিকিৎসকের দগ্ধ দেহ উদ্ধার হয় অন্য এক জায়গায়। ওই ঘটনায় জড়িত মহম্মদ পাশা(২৬), জল্লু শিবা (২০), জল্লু নবীন (২০) ও চিন্তাকুন্তা চেন্নাকেশাভুলুকে(২০) পুলিশ গ্রেফতার করে। ধর্ষকদের শাস্তির দাবিতে পুরোদেশ তোলপাড়। বিভিন্ন জায়গায় মোমবাতি মিছিলও করা হয়েছে। ধর্ষকদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির দাবিতে সংসদে বিরোধীরা সরব। এবার প্রিয়াঙ্কা রেড্ডির ধর্ষকদের দ্রুত শাস্তির দাবি জানালেন নির্ভয়ার মা আশা দেবী।

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালে দিল্লির চলন্ত গাড়িতে নির্মমভাবে গণধর্ষণের শিকার হতে হয়েছিল ডাক্তারির পড়ুয়াকে। প্যারামেডিক্যালের পড়ুয়া নির্ভয়াকে ২০১২ সালের ১৬ ডিসেম্বরের মধ্যরাতে চলন্ত গাড়িতে ছয়জন মিলে ধর্ষণ করে। পৈশাচিক অত্যাচারের পর তাঁকে বাস থেকে ঠেলে ফেলে দেওয়া হয়। তাঁকে দিল্লি থেকে বিমানে করে সিঙ্গাপুরে স্থানান্তর করা হয়েছিল। আপ্রাণ লড়াইয়ের পর ২৯ ডিসেম্বর সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়।

গত বুধবার হায়দরাবাদে মহিলা পশু চিকিৎসককে গণধর্ষণ করে জীবন্ত জ্বালিয়ে দেওয়া হয়। দুই ক্ষেত্রেই মায়ের কোল ফাঁকা হয়ে গিয়েছে। তাঁদের সন্তানরা যে কষ্ট পেয়ে মারা গিয়েছে, সেই একই কষ্ট অভিযুক্তদের চোখেমুখে দেখতে চান তাঁরা। হায়দরাবাদের সেই মৃত তরুণীর মায়ের দুঃখ যেন তিনি অনুভব করতে পারছেন। নির্ভয়ার মা আশা দেবী জানিয়েছেন, শীঘ্রই বিচার পাওয়া উচিত।

এক সাক্ষাতকারে আশা দেবী জানান, তেলেঙ্গনার মহিলা যে কষ্ট পেয়েছে তা বর্বরোচিত। নিজের মেয়েও গণধর্ষণের শিকার হয়েছিল এবং জীবনের সঙ্গে লড়াই করার পর মারা যায়। মেয়ের জন্য বিচার পেতে আশা দেবীর সাত বছর সময় লেগেছিল। মধ্য–কুড়ির তেলেঙ্গনার তরুণীর বিচার শীঘ্রই পাওয়া উচিত বলে মনে করেন আশা দেবী। তেলেঙ্গনার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও এই মামলাটির দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য তা ফার্স্ট–ট্র‌্যাক আদালতে শুনানির নির্দেশ দিয়েছে। তিনি জানিয়েছেন যে আক্রান্তের পরিবারকে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে।

অন্যদিকে, ২০১২ সালে নির্ভয়া গণধর্ষণের এক সাজাপ্রাপ্ত আসামী ক্ষমা প্রার্থনা চেয়ে দিল্লি সরকারকে আবেদন করে। কিন্তু সরকার তার আবেদন খারিজ করে দেয়। আশা দেবী সরকারের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন এবং তিনি আশাবাদী যে দোষীদের শীঘ্রই ফাঁসির সাজা হবে।