টিডিএন বাংলা ডেস্ক: সংসদে খোদ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ স্বীকার করে নিয়েছিলেন অসমে এনআরসি নিয়ে ত্রুটি-বিচ্যুতি হয়েছে। আর এবার সুপ্রিমকোর্ট যা বলল, তাতে আরও একবার প্রশ্নের মুখে এনআরসি প্রক্রিয়া।

অসময়ে এনআরসি চালু করতে কেন্দ্রীয় সরকার, অসম সরকার ও রাজ্য কো-অর্ডিনেটর কে নিযুক্ত করা হয়েছিল। কিন্তু তারা পারস্পরিক সমন্বয়ের মাধ্যমে কাজ না করে যে যার নিজের মতো করে কাজ করে চলেছে। যা নিয়ে ক্ষুব্দ সুপ্রিম কোর্ট। সুপ্রিম কোর্ট মনে করে সুষ্ঠুভাবে এনআরসি প্রক্রিয়া কার্যকরী করতে পারস্পারিক সমন্বয়ের মাধ্যমে কাজ করা উচিত। এই পারস্পারিক সমন্বয়ের অভাবের কারণেই এখন কেন্দ্রীয় সরকার ও অসম সরকার কে এনআরসির খসড়া তালিকা পুনরায় যাচাই করার কথা বলতে হচ্ছে।

উল্লেখ্য, এন আর সি তে যে ধরনের ত্রুটি বিচ্যুতি হয়েছে, তা দূর করতে নাগরিক পঞ্জির চূড়ান্ত খসড়া তালিকার ২০ শতাংশ ক্ষেত্রে পুনরায় যাচাই করতে চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করে অসম সরকার ও কেন্দ্র। শনিবার সেই মামলার শুনানি চলাকালীন সুপ্রিম কোর্ট সমন্বয়ের অভাবর বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করে।

যদিও কেন্দ্র ও রাজ্যের তরফে এনআরসি তালিকার ২০ শতাংশ পুনরায় যাচাই এর আবেদন নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ। ২০১৮ সালের ৩০ জুলাই নাগরিক পঞ্জির চূড়ান্ত তালিকায় ভুরিভুরি ভূয়ো নাম উঠেছে। আবার অসংখ্য বৈধ নাম বাদ পড়ে গেছে বলে অভিযোগ দীর্ঘদিন ধরে। তা খতিয়ে দেখতেই এনআরসির তালিকার ২০ শতাংশ ফের ক্ষতিয়ে দেখতে আর্জি জানায় কেন্দ্র ও অসম সরকার। মূলত, বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী জেলা গুলি থেকে আসা নাম গুলি পুনরায় খতিয়ে দেখতে চাই অসম সরকার ও কেন্দ্র। যদিও এনআরসির কো-অর্ডিনেটর প্রতীক হাজেলা অবশ্য দাবি করেছেন, নাম পুনরায় যাচাই করার বিষয়টি এনআরসি প্রক্রিয়ারই অংশ।

এনআরসি নিয়ে সমন্বয়ের যে প্রভাব রয়েছে তা নিয়ে কেন্দ্র ও অসম সরকারকে হাজেলার এক রিপোর্টকে হাতিয়ার করে সুপ্রিম কোর্ট। রিপোর্টে বলা হয়েছে, তারা এনআরসি তালিকায় ৮০ লক্ষ লোকের নাম খতিয়ে দেখেছে যা তালিকার মোট নামের ২৭ শতাংশ । এরপরই অসম সরকার ও কেন্দ্র কে সুপ্রিম কোর্টে জেলার রিপোর্ট বলছে তারা ইতিমধ্যেই যখন ২৭ শতাংশ নাম পুনরায় যাচাই করে ফেলেছে তখন তোমরা (অসম সরকার ও কেন্দ্র) এই নামগুলিরই ২০ শতাংশ ফের যাচাই করার কথা বলছ, আর এজন্য সময়ও চাইছ‌। একই নাম দু বার করে যাচাই করার কি প্রয়োজন?