টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ৩১ জুলাই আদালতে হাজির না হলে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হবে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে। মুম্বাইয়ের বিশেষ আদালত জাকির নায়েককে সশরীরে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ জারি করেছে। বিশেষ আদালতে হাজির না হলে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ওয়ারেন্টও জারি করার কথা বলা হয়েছে।

ওই দিন বিশেষ আদালতে যদি হাজির না হয় তবে তাঁর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ওয়ারেন্টও জারি করার আবেদন জানালে বিশেষ আদালত শেষবারের মতো সুযোগ দিতে চাইল জাকির নায়েককে। ৩১ জুলাই তাকে আদালতে হাজির হতে হবে। ইতিপূর্বে একাধিক বার এধরনের নির্দেশ দেয়া হয়েছিল আদালতের পক্ষ থেকে।

জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে অর্থঅপচয়ের মামলা শুরু করেছে ইডি । এছাড়াও ধর্মীয় উত্তেজনা ছড়ানো ও অন্য ধর্ম সম্পর্কে বিদ্বেষ ছড়ানো এবং সন্ত্রাসে উদ্বুদ্ধ করার মত বেশ কয়েকটি মারাত্মক অভিযোগ আনা হয়েছে ডাক্তার জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে।

জাকির নায়েক মামলা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে। বর্তমানে জাকির নায়েক মালয়েশিয়ায় রয়েছেন। মালয়েশিয়া সরকার তাকে সে দেশে থাকার অনুমতি দিয়েছে। ভারতের দাবি থাকা সত্ত্বেও জাকির নায়েককে ভারতের হাতে তুলে দিতে চাইনি মালয়েশিয়ার বর্তমান মাহাথির মোহাম্মদ সরকার।

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইতিপূর্বে ভারতের কাছে জানিয়েছিলেন, জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে অভিযোগের উপযুক্ত তথ্য-প্রমাণ তাদের হাতে পেশ করুক ভারত সরকার। এখন ইডির মাধ্যমে জাকির নায়েক ও মালয়েশিয়ার সরকারের উপর চাপ বাড়ানোর চেষ্টা চলছে। জামিন অযোগ্য ধারায় ওয়ারেন্ট জারি করার পর ইন্টারপোলের দ্বারস্থ হতে পারে সরকার।

জানা যাচ্ছে, জাকির নায়েককে আদালতে সোপর্দ করার জন্য মরিয়া চেষ্টা চালাবে ভারত সরকার। এই বিষয়টি আগাম আন্দাজ করার পর কয়েকদিন আগে জাকির নায়েক মন্তব্য করেছিলেন, যে যদি সুপ্রিম কোর্ট তার নিরাপত্তার গ্যারান্টি দেয়, তাহলে তিনি দেশে ফিরতে রাজি আছেন।

জাকির নায়েকের মতে, তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগে মামলা নিয়ে এসে তাকে হেনস্থা করার চেষ্টা চলছে। কিন্তু ইডির মতে, ১৯৩ কোটি টাকা পাচারের অভিযোগ তদন্ত করে তারা প্রমাণ সংগ্রহ করেছে এবং সেই অনুযায়ী এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, জাকির নায়েকের টিভি চ্যানেল পিসটিভি এবং তার স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা বন্ধ করে দিয়েছে সরকার। তার সংস্থার বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে। গ্রেফতারি এড়াতে জাকির নায়েক বিদেশ থেকে ভারতে আসার পরিকল্পনা ত্যাগ করে। এখন মালয়েশিয়ায় আশ্রয় গ্রহণ করেছে মাহাথির সরকার অভয় দানের পর।