টিডিএন বাংলা ডেস্ক: আত্মহত্যার আগে সুইসাইড নোটে দেশবাসীকে অনুরোধ করে এক কৃষক লিখে গেলেন, ‘দয়া করে বিজেপিকে ভোট দিবেন না’‌। উত্তরাখণ্ডের হরিদ্বার জেলার ৬৫ বছরের কৃষক ইশ্বর চাঁদ শর্মা বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে জানা গিয়েছে। সোমবারই এই ঘটনা ঘটেছে।

অতিরিক্ত ঋণের বোঝার জন্যই দেশজুড়ে কৃষকরা নিজের জীবন শেষ করে দিতে বাধ্য হচ্ছেন। ইশ্বর চাঁদও এই চরম পদক্ষেপের জন্য বিজেপিকে দোষারোপ করে গিয়েছেন। তিনি তাঁর সুইসাইড নোটে লিখেছেন, ‘‌গত পাঁচ বছরে বিজেপি সরকার কৃষকদের ধ্বংস করে দিয়েছে। তাদের ভোট দিও না। নইলে তারা সকলকে দিয়ে চা বিক্রি করাবে।’‌ যদিও পুলিস জানিয়েছে চিঠির সত্যতা যাচাই করার পরই পদক্ষেপ করা হবে।

আত্মঘাতী কৃষক তাঁর সুইসাইড নোটে লিখেছেন যে ব্যাঙ্কের ঋণ পাইয়ে দেওয়ার নাম করে তাঁকে ঠকানো হয়েছে। এক অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি তাঁকে ঋণ পাওয়ানোর নাম করে তাঁর কাছ থেকে সাদা চেক নেয়। কিন্তু সেই চেকের সাহায্যে কৃষকের ব্যাঙ্কে জমানো সব টাকা ওই প্রতারক নিয়ে নেয়। যা শষ্য বিক্রি করে কৃষক জমিয়েছিলেন।

প্রাথমিক তদন্তে উঠে আসে এক মধ্যম ব্যক্তির সাহায্যে যে মৃত কৃষক ব্যাঙ্কের কাছ থেকে ৫ লক্ষ টাকা ঋণ নিয়েছিলেন। কৃষক তাঁর সুইসাইড নোটে উল্লেখ করেছেন যে ওই ব্যক্তি গোটা বিষয়টি মিটমাট করার জন্য চার লক্ষ টাকা দাবি করে বসে।

কংগ্রেসের পক্ষ থেকে এই ঘটনার শোকপ্রকাশ করে জানানো হয় যে নরেন্দ্র মোদি তাঁর ইস্তেহারে কৃষকদের জন্য ক্ষতিপূরণের কথা ঘোষণা করেন। কিন্তু বিজেপির ভুল নীতির জন্য কৃষকরা আত্মহত্যা করতে বাধ্য হচ্ছেন। যদিও বিজেপি কংগ্রেসের দাবি উড়িয়ে দিয়ে জানায় যে এই ঘটনার সুবিধা নিতে মরিয়া হয়ে পড়েছে কংগ্রেস।