টিডিএন বাংলা ডেস্ক: দিল্লির জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়াদের উপরে পুলিশের নির্মম অত্যাচারের রবিবার একটি ভিডিও প্রকাশ্যে এসেছে। সোমবার ফের প্রকাশ্যে এলো হাড়হিম করা আরও এক ভিডিও। গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়ায় দিল্লি পুলিশ পঠনকক্ষের ভিতরে প্রবেশ করে এবং ছাত্রদের মারধর করে। ঘটনার দু’মাস পরে এবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায় সেই ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ। ৪৯ সেকেন্ডের ক্লিপে দেখা যাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরনো পঠন কক্ষে বসে রয়েছেন পড়ুয়ারা। অকস্মাৎ সেখানে প্রবেশ করে পুলিশ। পুলিশকে লাঠি দিয়ে পড়ুয়াদের মারতে দেখা গিয়েছে ভিডিওয়। ভিডিওয় দেখা গিয়েছে, পুলিশদের পরনে ‘রায়ট গিয়ার’। বিশেষ ভাবে সজ্জিত পুলিশরা এসে লাঠি দিয়ে মারতে থাকে পড়ুয়াদের। অনেক পড়ুয়াকে পালাতে দেখা যায়। ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই সমালোচনা করেছেন। পুলিশের ভূমিকা নিয়ে সরব হন বহু মানুষ। তীব্র নিন্দা জানান বলিউড পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপও। তিনি ভিডিওটি নিয়ে একটি টুইটও করেন।

রবিবারের পর সোমবার ফের প্রকাশ্যে এলো আরও এক হাড়হিম করা জামিয়ার পড়ুয়াদের উপরে পুলিশের নির্মম অত্যাচারের ভিডিও। কো-অর্ডিনেশন কমিটির সোমবার প্রকাশ করা সেই ভিডিয়োতেও দেখা যাচ্ছে, ওই দিন ব্যাপক তাণ্ডব চালিয়েছিলেন পুলিশ ও নিরাপত্তাকর্মীরা। আগের দিনের ফুটেজ ছিল লাইব্রেরির স্টাডি রুমের ভিতরের। সোমবারের ভিডিয়োটিতে দেখা যাচ্ছে একটি দরজার সামনে দাঁড়িয়ে নিরাপত্তাকর্মীরা। পড়ুয়ারা একে একে বাইরে বার হচ্ছেন। কিন্তু সরু দরজা দিয়ে এক সঙ্গে অনেকে বেরোতে গিয়ে জটলা সৃষ্টি হচ্ছে। তখনই শুরু হয় মারধর। বিশেষ করে ভিডিয়োর শেষ ২০ সেকেন্ড কার্যত ভয়ঙ্কর। পড়ুয়ারা গাদাগাদি হয়ে পড়ে আছেন। কেউ ছুটে পালানোর চেষ্টা করছেন। ওই অবস্থাতেই পড়ুয়াদের যাঁকে সামনে পাচ্ছেন, তাঁকেই নির্বিচারে লাঠিপেটা করছেন দিল্লি পুলিশ। কিছুক্ষণের মধ্যেই ওই জায়গাটা ফাঁকা হয়ে যায়। তার পর এক দিল্লি পুলিশের কর্মীকে দেখা যাচ্ছে, লাঠি দিয়ে সিসিক্যামেরা ভেঙে দিচ্ছেন। যদিও টিডিএন বাংলা কর্তৃপক্ষ এই ভিডিয়োর সত্যতা যাচাই করেননি।

তবে পড়ুয়াদের নির্বিচারে বেধড়ক মারধরের ছবি ধরা পড়েছে সিটি ক্যামেরারা ভিডিওতে। পাশাপাশি সিসি ক্যামেরা ভেঙে দিচ্ছেন এক নিরাপত্তা কর্মী, সেই ছবিও রয়েছে এই নয়া ভিডিয়োটিতে। কিন্তু কেন আন্দোলনে যোগ না দেওয়া লাইব্রেরিতে বসে পড়াশোনা করা নিরীহ পড়ুয়াদের এ ভাবে পেটানো হল, তার কোনও সদুত্তর নেই দিল্লি পুলিশের কাছে।

ইতিমধ্যেই পড়ুয়াদের উপরে পুলিশের নির্মম অত্যাচারের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। তিনি টুইট করে লেখেন, ‘‌স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং দিল্লি পুলিশ মিথ্যা বলেছিল যে তারা লাইব্রেরিতে ঢুকে ছাত্রছাত্রীদের মারধর করেনি। এই ভিডিও দেখার পরও যদি অভিযুক্ত পুলিশকর্মীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়া হয় তাহলে সরকারের মানসিকতা প্রকাশ্যে এসে যাবে।’‌