টিডিএন বাংলা ডেস্ক: বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ রাম পুন্যানীকে হুমকি দিল এক উগ্র হিন্দুত্ববাদী সংগঠন। গত ৬ জুন রাতে বিশিষ্ট এই শিক্ষাবিদ এবং উগ্র হিন্দুত্ববাদের কড়া সমালোচককে টেলিফোনে হুমকি দেওয়া হয়। বিজেপি ক্ষমতায় ফিরতেই হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলির এই বাড়বাড়ন্ত নিয়ে নানা মহলে সমালোচনা শুরু হয়েছে। এই সংগঠনগুলির ধমকি হুমকির হাত থেকে রেহাই পাচ্ছেন না বিশিষ্টরাও।

মুম্বই আইআইটি-র প্রাক্তন অধ্যাপক তাঁর প্রতিবাদী ভূমিকার জন্য দেশে এক পরিচিত নাম। ইতিমধ্যেই তিনি মুম্বই পুলিশের কাছে এই ঘটনায় এক এফ আই আর দায়ের করেছেন। পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। কে বা কারা এই হুমকি দিল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ৬ জুন রাত সাড়ে ৮টায় প্রথম তাঁর ল্যান্ডফোনে ফোন আসে। ফোন ধরেছিলেন তাঁরই পরিবারের এক সদস্য। ওই ফোনে অধ্যাপক পুন্যানীকে একজন ‘হিন্দু বিরোধী’ বলে অভিহিত করা হয় এবং বলা হয় পুন্যানীকে অবিলম্বে তাঁর কর্মসূচি বন্ধ করতে হবে। না হলে ফল ভালো হবেনা। ফোনের ওপার থেকে বলা হয়, অধ্যাপককে ১৫ দিনের মধ্যে মুম্বই ছাড়তে হবে।

এর পাঁচ মিনিট পরেই আবার ফোন আসে এবং যে ফোন ধরেন অধ্যাপক স্বয়ং। আবারও একইভাবে ওই ফোনেও পুন্যানীকে হুমকি দেওয়া হয়। সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিদের অধ্যাপক রাম পুন্যানী জানান, বিষয়টি গুরুতর এবং বিরক্তিকর। আমার পরিবার আমার সুরক্ষা নিয়ে চিন্তিত। আমার আশা, প্রশাসন বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করবে। এবারই প্রথম নয়। এর আগেও আমার কাছে এরকম হুমকি ফোন এসেছে। এর আগে গোবিন্দ পানসারে, নরেন্দ্র দাভোলকর, গৌরী লঙ্কেশ, এম এম কালবরগীদের মতো প্রতিবাদী কণ্ঠস্বর থামিয়ে দিয়েছে অজ্ঞাত পরিচয় দুষ্কৃতীরা। প্রতিবাদী কণ্ঠস্বর রাম পুন্যানীকে হুমকিকে তাই বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে ভাবছে বলে জানিয়েছে মুম্বই পুলিশ। প্রশাসন এখন পুন্যানীর সুরক্ষায় কী ব্যবস্থা নেয়, সেটাই দেখার।