টিডিএন বাংলা ডেস্ক: স্বাধীন ভারতে প্রথম আদিবাসী মহিলা উপাচার্য হিসেবে সিধু কানহু বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগ দিলেন অধ্যাপক সোনাঝরিয়া মিনজ। বৃহস্পতিবার রাজ্যপাল দ্রৌপদী মুর্মু ঝাড়খণ্ডের তিনটি বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য উপাচার্য নিয়োগ করেছিলেন। সদ্য নিয়োগ হওয়া একজন উপাচার্য হলেন অধ্যাপক সোনাঝরিয়া মিনজ। তাকে সিধু কানহু মুর্মু বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য করা হয়েছে। অন্য দুজনের মধ্যে মুকুল নারায়ণ দেওকে বিনোভা ভাবে বিশ্ববিদ্যালয় এবং অধ্যাপক রাম লখন সিংকে নীলাম্বর পিতাম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসাবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

অধ্যাপক সোনাঝরিয়া মিনজ দিল্লির জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অফ কম্পিউটার এবং সিস্টেমস সায়েন্সেসের অধ্যাপক। তিনি দিল্লির জওহর লাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় এবং চেন্নাইয়ের তাম্বরামের মাদ্রাজ ক্রিশ্চিয়ান কলেজ থেকে উচ্চতর পড়াশোনা শেষ করেন। তিনি এমএসসি করেছেন গণিত বিষয়ে তাম্রম, মাদ্রাজ ক্রিশ্চিয়ান কলেজ থেকে। তিনি নয়া দিল্লীর জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কম্পিউটার সায়েন্সে এমফিল এবং পিএইচডিও করেছেন।

অধ্যাপক মিনজ জেএনইউ থেকে স্নাতকোত্তর (এমফিল) এবং ডক্টরেট (পিএইচডি) করেছেন। জেএনইউতে অধ্যাপক হিসাবে কাজ করার আগে তিনি বরকতুল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, ভোপাল (মধ্য প্রদেশ) এবং মাদুরাই কামরাজ বিশ্ববিদ্যালয়, মাদুরাই (তামিলনাড়ু) -এ সহকারী অধ্যাপক হিসাবে কাজ করেছেন। গত ২৮ বছর ধরে তিনি জেএনইউতে শিক্ষকতা করছেন।

অধ্যাপক সোনাঝরিয়া মিনজের নিয়োগের পিছনে সহযোগিতা করেছেন ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন। নেটিজেনরা মনে করছেন যে অধ্যাপক মিনজ নিয়ে যেমন একজন আদিবাসী মহিলা হিসেবে এতবড় সাফল্য পেয়েছেন, তেমনি তিনি অন্যান্যদের উঠে আসতে সহযোগিতা করছেন। পাশাপাশি মিনজের এই সাফল্য আদিবাসী সম্প্রদায়ের শিক্ষার্থীদের অনুপ্রেরণায় সহায়তা করবে।