টিডিএন বাংলা ডেস্ক: আসামে ব্যাংক প্রতারণার দায়ে ধরা পড়ল নীরব মোদির ক্ষুদ্র সংস্করণ। আসামের ডাকাবুকো আরএসএস নেতা তথা আসাম রাজ্য ক্ষুদ্র শিল্পোন্নয়ন নিগম (এস আই ডি সি)এর ভাইস চেয়ারম্যান অমল বৈশ্যকে জেলে পোরা হয়েছে ব্যাংক প্রতারণার অভিযোগে। জাল নথির মাধ্যমে ৫০ লক্ষ টাকা প্রতারণার অভিযোগ তার বিরুদ্ধে।

অভিযুক্ত ব্যাঙ্ক ম্যানেজার আগেই আত্মসমর্পণ করেন। আরএসএস নেতাকে বাড়ি থেকে গ্রেফতার করেন ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন অফ ইকনোমিক অফেন্স (বি আই ই ও) এর তদন্তকারীরা। ৯ মার্চ তাকে জেলে প্রেরণ করা হয়। অভিযোগ ভুয়ো নথি দাখিল করে সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (সি বি আই) থেকে ৫০ লক্ষ টাকা ঋণ নিয়েছিলেন আরএসএস নেতা অমল বৈশ্য। মন্টু বৈশ্য নামে একজন দিনমজুরের নথি নাকি জমা দিয়েছিলেন তিনি।

তাকে সহায়তা করেন ব্যাংকের ম্যানেজার যাদব শীল।যাদব অবশ্য অনেক আগেই আত্মসমর্পণ করেন। বি আই ই ও সূত্রে খবর, বারবার নোটিস পাঠালেও এস এস আই ডি সির ভাইস চেয়ারম্যান তাদের আমল দেননি তাই এদিন তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়। উল্লেখ্য, ৮ মার্চ আসাম এর চাকুরী কেলেঙ্কারি প্রকাশ্যে আসে চাকুরী নিয়ে ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগে সোচ্চার বিজেপিরই একটি অংশ। তাই মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল তদন্তের নির্দেশ দিতে বাধ্য হয়েছেন। তার পর দিনই ব্যাঙ্ক জালিয়াতির দায়ে আরএসএস কর্তা গেলেন জেলে। লোকসভা ভোটের আগে বেশ বেকায়দায় স্বচ্ছ প্রশাসনের দাবিদার বিজেপি। কংগ্রেসের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ এদিন দাবি করেন, ১৪ টির মধ্যে কংগ্রেস একাই পাবে ১০ টি আসন। এদিকে, দেশের সবচেয়ে মর্মান্তিক বিষমদ কান্ডের রেশ মিলিয়ে যাওয়ার আগেই আসামে ফের চোলাই মদের শিকার ৩ জন। ৮ই মার্চ মদে বিষক্রিয়ায় আমগুড়ির রন্টু চেতিয়া এবং গোলাঘাটের রাতুল দাস ও জিতু দাশ প্রাণ হারান। নতুন করে এর মৃত্যুর ঘটনায় ফের আসাম সরকার আক্রমণের মুখে।

সূত্র: ডেইলি দেশের কথা