টিডিএন বাংলা ডেস্ক : আর্থিক তছরূপ মামলায় ইডির জেরার মুখে ব্যবসায়ী রবার্ট বঢরা। তাঁর সঙ্গে ইডির দফতরে যান প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢরা। পরে অবশ্য তিনি সেখান থেকে চলে যান। লন্ডনে ১.৯ মিলিয়ন পাউন্ড সম্পত্তি কেনা নিয়ে মামলার তদন্ত করছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। গত সপ্তাহে দিল্লি আদালত তাঁকে ১৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেয়। আর্থিক তছরূপ প্রতিরোধ আইনে (প্রিভেনশন অফ মানি লন্ডারিং অ্যাক্টে) তাঁর বয়ান রেকর্ড করা হয়। জেরায় উঠে আসে সম্পত্তি কেনা সংক্রান্ত নানা প্রশ্ন। এই প্রথম রাহুল গান্ধীর শ্যালক কোনো তদন্তকারী সংস্থার জেরার মুখোমুখি হলেন। গত সপ্তাহে তাঁর অন্তর্বর্তীকালীন জামিনের শুনানির সময় রবার্ট বঢরার আইনজীবী বলেন, তাঁর মক্কেল রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার। অন্যদিকে জামিনের আবেদনের বিরোধিতা করেন সিবিআইয়ের আইনজীবী। সামনেই লোকসভা ভোট। তার আগে শুরু হচ্ছে প্রিয়ঙ্কার নতুন রাজনৈতিক সফর। এই অবস্থায় রবার্ট যদি আর্থিক তছরূপ মামলায় ফাঁসেন, তাহলে কংগ্রেস যে অস্বস্তিতে পড়বে তা বলাই যায়। অন্যদিকে বিরোধীদের অভিযোগ, ভোট এগিয়ে আসতেই সিবিআই, ইডিকে রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে মোদী সরকার।