টিডিএন বাংলা ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সম্পর্কে অবমাননাকর মন্তব্যের জন্য রাহুল গান্ধীর বিরুদ্ধে ফৌজদারী মামলা করেছিলেন বিজেপি নেত্রী মীনাক্ষী লেখি। সেই মামলা থেকে রাহুলকে মুক্তি দিল শীর্ষ আদালত। যার ফলে কিছুটা স্বস্তি পেলেন রাহুল। কারণ এর আগেই প্রধানমন্ত্রীকে অবমাননাকর মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিলেন তিনি। গত বছরের শেষে রাফালে মামলার রায় দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। তারপরে তাই নিয়ে রিভিউ পিটিশন দাখিল হয়। সেখানে কিছু নথি পেশ হলে কেন্দ্র তা নিয়ে আপত্তি জানায়। যা সুপ্রিম কোর্ট খারিজ করে দিয়েছিল। সেই ঘটনার সূত্র ধরে গত ১০ এপ্রিল রাহুল গান্ধী সুপ্রিমকোর্টকে উদ্ধৃত করে জানিয়ে দেন, সুপ্রিম কোর্টও মেনে নিয়েছে যে ‘চৌকিদার চোর হ্যায়’। অর্থাৎ সুপ্রিম কোর্টের নাম নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ করেন তিনি। রাহুল গান্ধী এর আগে এই মন্তব্য করার জন্য সর্বোচ্চ আদালতের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন।

তার হয়ে মামলা লড়া আইনজীবী অভিষেক মনু সিংভি আদালতে জানিয়েছেন যে, তাঁর মক্কেল ক্ষমা চেয়েছেন। এর পাল্টা মিনাক্ষী লেখির আইনজীবী মুকুল রোহতগি আদালতের কাছে আবেদন জানান রাহুলের এই ক্ষমা প্রার্থনা মঞ্জুর না করে তাঁর বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে। যদিও আদালত সেই আবেদনে গুরুত্ব না দিয়ে রাহুলকে সতর্ক করে মামলার রায় শুনিয়ে দিয়েছে।