টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ঠিক এক সপ্তাহ আগে হায়দরাবাদের শাদনগরে ২৬ বছর বয়সী পশুচিকিৎসক প্রিয়াঙ্কা রেড্ডিকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা করা হয়। বৃহস্পতিবার পশুচিকিৎসকের দগ্ধ দেহ উদ্ধার হয় অন্য এক জায়গায়। ওই ঘটনায় জড়িত মহম্মদ পাশা(২৬), জল্লু শিবা (২০), জল্লু নবীন (২০) ও চিন্তাকুন্তা চেন্নাকেশাভুলুকে(২০) পুলিশ গ্রেফতার করে। ধর্ষকদের শাস্তির দাবিতে পুরোদেশ তোলপাড়। বিভিন্ন জায়গায় মোমবাতি মিছিলও করা হয়েছে। ধর্ষকদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির দাবিতে সংসদে বিরোধীরা সরব। এমনকী ধর্ষকের মা ছেলের এই জঘন্য অপরাধের জন্য নিজের ছেলেকে জীবন্ত পুড়িয়ে মারার শাস্তির দাবি করেছেন। এবার প্রিয়াঙ্কা রেড্ডির ধর্ষকদের ছ’‌মাসের মধ্যে ফাঁসির দাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্যে অনশনে বসলেন দিল্লির মহিলা কমিশনের প্রধান স্বাতী মালিওয়াল। এদিন দিল্লির যন্তরমন্তরে কয়েকশো মহিলার সঙ্গে অনশনে তিনি।

এবিষয়ে স্বাতী মালিওয়াল জানান, ‘‌নাবালিকা ও তরুণীদের ধর্ষণকারীদের বিরুদ্ধে ফাঁসির সাজা শোনাতে হবে। হায়দরাবাদ ও রাজস্থান কাণ্ডের ধর্ষণকারীদের মৃত্যুদণ্ড দিতে হবে। গত বছরও প্রতিবাদ জানিয়েছিলাম। সেসময়ে সরকার আইন এনে জানিয়েছিল, কোনও নাবালিকার ধর্ষণকারীদের মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হবে। কিন্তু সেসব কিছুই কার্যকর হয়নি।’‌

অনশনে বসার পর থেকেই আসতে শুরু করেছে পুলিশের হুমকি। স্বাতীকে শীঘ্র যন্তরমন্তর খালি করে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ। দোষী সাব্যস্ত হওয়ার ছ’‌মাসের মধ্যে ধর্ষণকারীদের ফাঁসি দিতে হবে, তা সুনিশ্চিৎ করার আবেদন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে একটি চিঠিও লিখেছেন স্বাতী মালিওয়াল। মহিলাদের নিরাপত্তা সংক্রান্ত বেশ কয়েকটি বিষয়েরও উল্লেখ করেছিলেন স্বাতী। কিন্তু সেই চিঠির আজও কোনও জবাব এসে পৌঁছায়নি।

উল্লেখ্য, ধর্ষণকারীদের ‘জনসমক্ষে পিটিয়ে মারা উচিত’ বলে রাজ্যভায় গত কাল মন্তব্য করেছেন সমাজবাদী পার্টির সাংসদ জয়া বচ্চন। তাঁর বক্তব্যকে সমর্থন জানিয়ে কঠোর আইন আনার জন্য সংসদে সবর হয়েছিলেন যাদবপুরের তৃণমূল সাংসদ মিমি চক্রবর্তী।