টিডিএন বাংলা ডেস্ক: কেন্দ্রের নতুন নাগরিকত্ব সংশোধন আইন (সিএএ) এবং জাতীয় নাগরিকের জাতীয় নিবন্ধক (এনআরসি) এর প্রতিবাদে দেশজুড়ে বিক্ষোভ অব্যাহত। বুধবার সিএএ ও এনআরসি বিরোধী বিক্ষোভ-মিছিলে উত্তাল হল তামিলনাড়ু। বুধবার চেন্নাইয়ের ওয়ালজাহ রোডে বিশাল বিক্ষোভ-মিছিল করে জনসাধারণ। আন্দোলনকারীরা ভারতীয় পতাকা ছাড়াও সিএএ, এনআরসি এবং এনপিআরের বিরুদ্ধে প্ল্যাকার্ড বহনকারী কালাভানর আরঙ্গম স্টেডিয়ামে একত্রিত হয়ে মিছিল করে চেপাউক পর্যন্ত ২০০ মিটার হেঁটে পর্যন্ত যায়। সেখানে সিএএ বিরোধী একটি অস্থায়ী শাহিনবাগ মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে। বিশাল এই পদযাত্রা সামাল দিতে উপস্থিত ছিল বিশাল পুলিশ বাহিনী। মিছিল তামিলনাড়ু সচিবালয়ের দিকে যাওয়ার আগেই ব্যারিকেড ব্যবহার করে বন্ধ রাস্তা বন্ধ করে দেয়।

মঙ্গলবার মাদ্রাজ হাইকোর্টের বিচারপতি এম সত্যনারায়া ও বিচারপতি আর হেমলথার একটি বেঞ্চ বুধবারের জন্য প্রস্তাবিত তামিলনাড়ু ইসলামী ও রাজনৈতিক সংগঠন ফেডারেশন এবং এর সহযোগী সংস্থাগুলিকে এই আন্দোলন করা থেকে বিরত রেখে ১১ মার্চ পর্যন্ত অন্তর্বর্তীকালীন আদেশের অনুমোদন দিয়েছে। আদালত স্পষ্ট জানিয়েছে যে সিএএ ও এনআরসি বিষয়ে কোনও মতামত প্রকাশ করবে না। এছাড়াও মাদ্রাজ সিটি পুলিশের পক্ষ থেকে ৪৪ ধারা প্রয়োগ করে ১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৫ দিনের জন্য নগরীতে যে কোনও ধরনের আন্দোলন বা বিক্ষোভ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

বিক্ষোভকারীদের দাবি, এআইএডিএমকে সরকার বিধানসভায় একটি সিএএ-র বিরোধী প্রস্তাব আনুক। যেমন কেরল, বাংলা সহ একাধিক অবিজেপি রাজ্য গুলি এনেছে। এর আগে বিধান সভায় অধিবেশন চলাকালীন বিরোধী ডিএমকে সিএএ বিরোধী প্রস্তাবটি পেশ করে। কিন্তু স্পিকার পি ধনপাল সেই প্রস্তাব খারিজ করে দেয়।

উল্লেখ্য, চেন্নাই এক মাস ধরে সিএএর বিরুদ্ধে ক্রমাগত আন্দোলন চালিয়ে আসছে, এর মধ্যে উত্তর চেন্নাইয়ের ওয়াশারম্যানপেটে সবচেয়ে বেশি সিএএ ও এনআরসি বিরোধী বিক্ষোভ চলছে। এখানে একটি শাহীনবাগও গড়ে উঠেছে। যেটাকে সোশ্যাল মিডিয়ায় “চেন্নাইয়ের শাহীন বাগ” হিসাবে আখ্যা দেওয়া হয়েছে।
Attachments area