টিডিএন বাংলা ডেস্ক : ঘূর্ণিঝড় ‘গাজা’ আঘাত হানায় তামিলনাড়ু থেকে ৭৬ হাজার মানুষকে নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। আজ সকালে ওই রাজ্যে ভূমিধসের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বাতাসের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১২০ কিলোমিটার।

তামিল নাড়ু উপকূল এবং নাগাপাত্তিয়ামের ওপর দিয়ে বয়ে গেছে ঘূর্ণিঝড়টি। এটি রাজধানী চেন্নাই থেকে ৩শ কিলোমিটার দূরে আঘাত হেনেছে।

নিম্নাঞ্চল থেকে লোকজনকে তিনশটি আশ্রয় কেন্দ্রে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। নাগাপাত্তিয়াম, পুডুকোত্তাই, রামানাথাপুরাম এবং তিরুভারুরসহ ছয় জেলার আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছে মানুষ।

ঘূর্ণিঝড় গাজা আঘাত হানার আগেই রাজ্যজুড়ে সতর্কতা জারি করা হয়েছিল। বিজ্ঞপ্তি জারি করে রাজ্যের সব স্কুল-কলেজ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে তামিলনাড়ু প্রশাসন।

নৌবাহিনীর তরফ থেকেও চূড়ান্ত সতর্কতা জারি করা হয়। একদিকে মুষলধারে বৃষ্টি আর অন্যদিকে ঘূর্ণিঝড়ের দাপটে দক্ষিণ ভারতের জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে উঠেছে।

আগামী ছয় ঘণ্টার মধ্যে ঘূর্ণিঝড়টি শক্তি হারিয়ে দুর্বল হয়ে পড়বে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। নাগাপাত্তিয়াম, তিরুভারুর এবং থানজাভুরে ভূমিধস এবং ভারী বৃষ্টিপাত হবে বলে সতর্ক করা হয়েছে।

দক্ষিণাঞ্চলে চারটি ট্রেনসেবা বাতিল করা হয়েছে। এর মধ্যে তিনটি চেন্নাই থেকে নাগাপাত্তিনাম, তিরুভারুর এবং থানজাভুর জেলার।