টিডিএন বাংলা ডেস্কডাক্তারদের নিরাপত্তা দিতে সাধারণ রোগীদের অবহেলা করা যাবে না। এদিন এক শুনানিতে এমনটাই জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট। এই নির্দেশ কার্যত ধাক্কা খেল আইএমএ। কারণ শীর্ষ আদালত এদিন স্পষ্ট জানিয়ে দেয়,  ডাক্তারদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে সাধারণ মানুষকে অবহেলা করা যাবে না। দেশের আইন শৃঙ্খলার সঙ্গে কোনওরকম সমঝোতা বরদাস্ত করা হবে না। রোগী মৃত্যুকে কেন্দ্র করে এনআরএসে জুনিয়র ডাক্তারদের মারধরের ঘটনায় গত সাতদিন ধরে স্তব্ধ হয়ে পড়েছিল পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য পরিষেবা। নিরাপত্তার দাবিতে ডাক্তারদের কর্মবিরতির আঁচ গিয়ে পড়েছিল বাইরের রাজ্যগুলিতেও। আন্দোলনে সামিল হয়েছিলেন এইমস-এর ডাক্তাররা। এরই মধ্যেই সুপ্রিম কোর্টে মামলা করেছিল আইএমএ (ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন)। মামলাটি করেন আইনজীবী অলোক শ্রীবাস্তব। আইএমএ-র তরফে আর্জি জানানো হয়েছিলকেন্দ্রীয় সরকারকে দেশের চিকিৎসকদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার ব্যাপারে কোনও নির্দেশ দেওয়া হোক। কিন্তু এদিন শীর্ষ আদালত স্পষ্ট জানিয়ে দেনকোনও পরিস্থিতিতেই ডাক্তারদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে গিয়ে সাধারণ মানুষকে অবহেলা করা চলবে না। আইনকে বাজি রাখা যাবে না।  রোগীরা রাস্তায় পড়ে রয়েছেবিনা চিকিত্সায় রোগীমৃত্যু হচ্ছেতা মেনে নেওয়া হবে না।  

সারা দেশে সরকারি হাসপাতালে ডাক্তারদের নিরাপত্তা নিয়ে আবেদনের শুনানি হয় আজ। আইনজীবী আলাখ অলোক শ্রীবাস্তব এই মামলার দ্রুত শুনানি চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেন। সেই আবেদনের ভিত্তিতে বিচারপতি দীপক গুপ্ত ও বিচারপতি সূর্য কান্তের অবকাশকালীন বেঞ্চ মঙ্গলবার মামলা শুনতে রাজি হয়েছে। এনআরএস কাণ্ডের জেরে ডাক্তারদের আন্দোলনে উত্তাল দেশ। শুক্রবার ডাক্তারদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জমা পড়ে। সেই আবেদনের শুনানিতে আদালত জানিয়ে দিয়েছে, রোগীদের অবহেলা করা যাবে না।