ছবি : দ্য ওয়্যার

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : দেশজুড়ে দুর্গোৎসবের পাশাপাশি দশেরা পালিত হচ্ছে মহা সাড়ম্বরে। কিন্তু ঝাড়খন্ডে ভোমলার সুদূর পাহাড়ি অঞ্চলে বসবাসকারী আদিবাসীরা বিগত ১০ দিন ধরে গভীর শোকে ডুবে রয়েছেন। আসলে মহিষাসুরকে নিজেদের পূর্বপুরুষ মনে করা এই আদিবাসীদের দুঃখ যে, তাদের পূর্বপুরুষকে প্রতারিত করে মারা হয়েছিল। মহিষাসুরের মৃত্যু দিবস ঝাড়খণ্ডের সিংহম এলাকাতেও পালিত হয়েছে। অনেক জায়গায় মহিষাসুরকে যথারীতি পুজোও করা হয়েছে।

এই ধারাবাহিককতা বজায় রেখেই নবমী পূজার দিন অর্থাৎ শুক্রবার চাকুলিয়ায় অনুষ্ঠিত মহিষাসুর মৃত্যু দিবসের অনুষ্ঠানে আদিবাসী সাঁওতাল, বহুজন, কুড়মিদের সঙ্গে দলিত সম্প্রদায়ের লোকেরাও যোগ দিয়েছিলেন। মহিষাসুর পুজোর খবর ঝাড়খণ্ড ছাড়াও পশ্চিমবঙ্গ, ছত্তিশগড় ও মধ্যপ্রদেশের কিছু আদিবাসী এলাকা থেকেও পাওয়া গিয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের কাশীপুরের একাধিক জায়গায় মহিষাসুরের মৃত্যু দিবস-এর আয়োজন করা হয়েছিল।