টিডিএন বাংলা ডেস্ক:  মোদী হটানোই প্রথম ও প্রধান লক্ষ্য। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথায় বারবার সেটাই ম্পষ্ট হয়েছে। তাই তৃণমূলের ইস্তেহারে মোদীর আমলে ব্যর্থতার খতিয়ান তুলে ধরা হবে। পাশাপাশি থাকবে মমতার বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক প্রকল্প থেকে মানুষ কীভাবে সুবিধা পেয়েছন।

ভোটের ঢাকে কাঠি পড়তেই সব দল প্রার্থী ঘোষণা শুরু করে দিয়েছে। এরপরেই ইস্তেহার প্রকাশ। শোনা যাচ্ছে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগামী সপ্তাহে দলীয় ইস্তেহার প্রকাশ করবেন।

সূত্রের খবর, লোকসভা নির্বাচনের তৃণমূলের ইস্তেহারকে এবার দুটি ভাগে ভাগ করা হবে।

ইস্তেহারের একটা ভাগে থাকছে বিগত ৭-৮ বছরে রাজ্যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের খতিয়ান। যার মধ্যে থাকছে বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক প্রকল্পের কথা যা তৃণমূল সরকার করেছে।

পাশাপাশি, কৃষি, শিল্প, পরিকাঠামো-সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে কী ভাবে বাংলা এগিয়েছে, সেই তথ্যও থাকছে তৃণমূলের ইস্তেহারে।

আর দ্বিতীয়ভাগে থাকছে জাতীয় রাজনীতির বিষয়। সেখানে থাকছে, কেন দেশে পরিবর্তন চাই। মোদীর আমলে দেশে কোন কোন ক্ষেত্রে অবনমন ঘটেছে।

অন্যদিকে পরিবর্তন হলে আর সেই সরকারে তৃণমূল কংগ্রেস থাকলে দেশের মানুষের জন্য কী কী করা হবে তার খতিয়ানও থাকবে ইস্তেহারে।