টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ২০১৬ সালে আজকের দিনে বাতিল হয়েছিল পুরনো ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট। বদলে এনেছিল নতুন ২০০০ ও বেশ কিছু নতুন নোট। মোদী সরকারের হঠাৎ এমন সিদ্ধান্তে চমকে উঠেছিল দেশবাসি। মাথায় আকাশ ভেঙে পড়েছিল মাঝারি ও ছোট ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে সাধারন মানুষের। পুরনো নোট নিয়ে হয়রানির শিকার হতে হয়েছিল পুরো দেশবাসিকে। তাঁর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ভুক্তভোগী হয়েছিলেন গরীব, খেটে খাওয়া সাধারন মানুষ গুলো। দিন রাত এক করে বাঙ্কের সামনে লাইন দিয়ে দাড়িয়ে থাকতে হয়েছিল তাদেরকে। এমনকি প্রানও হারিয়েছেন অনেকেই। তাঁর পর অর্থনীতি নিয়ে অনেক জল গড়িয়েছে। এক দুই করে পার হয়েছে তিন তিনটি বছর। ফল স্বরূপ অর্থনীতির হাল ঠেকেছে তলানিতে। এবার বাতিল হতে পারে ২০০০ এর নোটও। নোটবন্দির তৃতীয় বর্ষপূর্তিতে এমনই জল্পনা উসকে দিলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থ সচিব সুভাষ চন্দ্র গর্গ। নিজের ব্লগে গোলাপী নোট নিয়ে এমনই দাবি সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন ৩১ অক্টোবর অবসর নেওয়া আমলা। তাঁর কথায়, কোনও সমস্যা ছাড়াই ২০০০-এর নোট ‘তুলে নেওয়া’ হচ্ছে।

‘বড় সংখ্যায় ২০০০-এর নোট এখন আর বাজারে মিলবে না। ধীরে ধীরে তুলে নেওয়া হয়েছে। সম্ভাবনা এমনও যে পরবর্তীতে তা বাতিল করা হবে।’ নিজের ব্লগে লিখেছেন প্রাক্তন IAS। ২০০০-এর নোট ব্যাংকে ফিরিয়ে দেওয়ার পরামর্শও দিয়েছেন প্রাক্তন আমলা। ৩১ অক্টোবর নিজের টুইটার হ্যান্ডলে অবসরের পোস্ট করেছিলেন তিনি। সেখানে নিজের অবসরকে ‘হঠাৎ’ বলেই বর্ণনা করেছেন সুভাষ চন্দ্র গর্গ।