টিডিএন বাংলা ডেস্ক: বেশ কিছুদিন ধরেই নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে অগ্নিগর্ভ বিজেপি শাসিত উত্তরপ্রদেশ। যোগী রাজ্যে বিক্ষোভকারীদের সবক শেখাতে নির্বিকারে পুলিশের বিরুদ্ধে গুলি চালানোর অভিযোগ উঠে।  এমনকি ২১ জন বিক্ষোভকারীর গুলিতে মৃত্যুও হয়েছে। কিন্তু উল্টে যোগীর পুলিশ অভিযোগ করে বিক্ষোভকারীরা তাদের উপর গুলি চালিয়েছে। এবং ৫৭ জন পুলিশ কর্মী বিক্ষোভকারীদের গুলিতে আহত হন। তবে এবার প্রকাশ্যে চলে আসল সত্য। আর সেই সত্য প্রকাশ্যে আসতেই নতুন করে বিতর্কে জড়ালো উত্তরপ্রদেশ পুলিশ।  

পুলিশের দাবি ছিল বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশে পুলিশ গুলি চালায়নি , বরং ৩০০ জন পুলিশকর্মী আহত হয়েছেন । এর মধ্যে ৫৭ জন গুলিতে আহত হয়েছেন । কিন্তু আদতে গুলিতে  আহত শুধুমাত্র একজন পুলিশেরই খোজ মিলল।

একটি সংবাদমাধ্যম এই বিষয়ে খোঁজ খবর নিয়েছিল । সেখানেই তারা খোঁজ পান মুজফফরনগরের এসপি সতপাল অন্তিলের । যার পায়ে গুলি লেগেছে । তিনি এখনও জখম জায়গায় ব্যান্ডেজ পরে রয়েছেন । সতপাল নিজেই গুলির ক্ষতস্থানের ছবিও দেখান।

তিনি জানান , গত ২০ ডিসেম্বর নিজের টিমের সঙ্গে মিনাক্ষী চকে ছিলাম । তখনই আমার গুলি লাগে । এরপর আর কিছুই বুঝতে পারিনি , শুধু দেখেছি অনেক রক্ত বেরোচ্ছিল । যদিও এই ঘটনায় পৃথকভাবে কোনও মামলা দায়ের করেনি উত্তরপ্রদেশ পুলিশ।  তবে ২০০জন বিক্ষোভকারীর বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার অভিযোগ আনা হয়েছে । বাকি গুলিতে জখম কোনও পুলিশ কর্মীর খোঁজ মেলেনি।