নিজস্ব প্রতিনিধি, টিডিএন বাংলা, মালদা: মায়ের চিকিৎসার জন্য ছেলে নিজের কিডনী বিক্রির আবেদন জানালো জেলা প্রশাসনের কাছে। দিদিকে বল ফোন নাম্বারে ফোন করে মিলেছে সাহায্যের আশ্বাস। আশায় বুক বেঁধেছেন গাজলের রশিকপুরের হতদরিদ্র ওই পরিবারটি। ২০১৮ সালের ২মে রশিকপুরের মহিলা তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী নন্দরানী বিশ্বাস গাজলের শান্তি মোড় এলাকায় গিয়েছিলেন তৃণমূলের সমাবেশে যোগ দিতে।

ফেরার পথে পথ দুর্ঘটনায় গুরুতর জখম হন তিনি। এরপর তাকে মালদার একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে নিয়ে যাওয়া হয় কলকাতার আরজিকর হাসপাতালে। সেখানেই হাঁটুর ওপর থেকে ডান পা কাটা যায়। এই মহিলা তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী। তখন থেকেই কলকাতায় চিকিৎসা চলছে তার। কিন্তু পারিবারিক আর্থিক দুরবস্থার কারণে গত তিন মাস ধরে বন্ধ হয়ে গেছে চিকিৎসা। তৃণমূল নেতৃত্বের দ্বারে দ্বারে ঘুরেও মিলেনি সাহায্য বলে অভিযোগ।

জেলা শাসকের কাছে সাহায্যের আর্জি জানিয়ে আবেদন করেছেন ওই মহিলার ছেলে গোপাল বিশ্বাস। সাহায্য না পেলে তাকে যাতে কিডনি বিক্রির অনুমতি দেওয়া হয় আবেদনে উল্লেখ রয়েছে। আর এই নিয়ে তোলপাড় জেলার প্রশাসনিক মহল থেকে রাজনৈতিক মহল। একযোগে সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন মালদা জেলা শাসক রাজর্ষি মিত্র ও জেলা তৃণমূলের কার্যকরী সভাপতি দুলাল সরকার। যদিও পুরো বিষয়টি নিয়ে তৃণমূলকে কটাক্ষ করেছেন জেলা বিজেপি নেতৃত্ব।