টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ২৭ বছরের স্ত্রী। শীর্ণকায় মাঝ বয়সি স্বামীকে কাঁধে নিয়ে ঘুরছে গোটা গ্রাম। থামলেই লাঠির ঘা লাগিয়ে দিচ্ছে এক পুরুষ। বয়স্ক আরেকজন কুৎসিত অঙ্গভঙ্গি করে মহিলার চারি দিকে ঘুরে নাচছে। কেউ কাপড় ধরে টানছে, তো কেউ বিশ্ৰী ভাষায় গালি দিচ্ছে। মোদির শাসনে দেশের মহিলাদের হল কেমন তার লজ্জাজনক এই উদাহরণ দেখল মধ্যপ্রদেশের ঝাঁবুয়া জেলার এক গ্রাম। উন্মত্ত বাহিনী এক মহিলাকে বাধ্য করল তার স্বামীকে কাঁধে নিয়ে গ্রাম ঘুরতে।

শনিবার ঝাবুয়া জেলার দেবীগড় গ্রামে ঘটে এই ঘটনা। গ্রামটি ভোপাল থেকে ৩৪০ কিলো মিটার দূরে। পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। পুলিশ জানায়, মহিলা স্বামীর অত্যাচার সইতে না পেরে পালিয়ে গিয়েছিল বাড়ি থেকে। আরেকজনকে ভালোবাসতো সে। তার সাথে চলে গিয়েছিল গুজরাটে। মহিলার স্বামী মহিলার সন্ধান পেয়ে তাকে ধরে গ্রামে নিয়ে আসে। তারপরই চলে তার উপর মধ্যযুগীয় বর্বরতা। ঘটনার ভিডিও বানিয়ে হোয়াটস অপে ছড়িয়েও দেয়া হয়।

জেলার পুলিশ সুপার বিনিত জৈন বলেন, অত্যন্ত অমানবিকভাবে মহিলাকে জনসমক্ষে নিপীড়ন করা হয়েছে। স্থানীয় থানার ওসি-কে নির্দেশ দেয়া হয়েছে অতিরিক্ত বাহিনী নিয়ে ঐ গ্রামে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে।অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিজয় দ্বার জানান, ১০ দিন আগে মহিলা গ্রাম ছেড়েছিল। ফেরার পর তাকে ১০-১২ জন ব্যক্তি অশালীন ব্যাবহার করে। জনসমক্ষেই এ ঘটনা ঘটে।