টিডিএন বাংলা ডেস্ক : ২০০৮ সালের ২৬ নভেম্বর মুম্বাইয়ে একটি বড় সন্ত্রাসী হামলা হয়েছিল। সরকারি রিপোর্ট অনুযায়ী, ১৬৭ জন নিহত হয়েছিল। কেন্দ্রে ইউপিএ সরকার ছিল এবং প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শিবরাজ পাতিল ছিলেন। আক্রমণের তিন দিনের মধ্যে, তখনকার বিরোধী দল বিজেপি, সরকারকে এত চাপ দিয়েছিল যে ৩০ নভেম্বর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শিবরাজ পাতিলকে পদত্যাগ করতে হয়েছিল।

কিন্তু আজ সন্ত্রাসী হামলার সময় বিজেপি যখন ক্ষমতায় , তখন বিজেপি নেহরুকে নিয়ে এসে নিজেদের বাঁচাতে চাইছে। বৃহস্পতিবার অমিত শাহ প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুকে আক্রমন করে বলেছেন, “যে কাশ্মীরের কারনে এইসব সন্ত্রাসী ঘটনা পাকিস্থান আজ করাচ্ছে, সেই কাশ্মীর সমস্যার কেউ জনক তো, তিনি হলেন পন্ডিত জওহরলাল নেহরু, যার কর্মের জন্য আজ কাশ্মির ফেঁসে আছে। দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী সর্দার প্যাটেল হলে কাশ্মীর সমস্যা থাকতো না”।

প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী পণ্ডিত জওহরলাল নেহেরুকে পুলওয়ামা আক্রমণের জন্য দায়ী করার পর অমিত শাহকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় মজা করছে এবং অনেকে সমালোচনা করছে।

সমাজকর্মী ও লেখক রাম পুনিয়ানি লিখেছেন, “পুলওয়ামা আক্রমণের জন্য পুরো বিশ্ব পাকিস্তানকে দায়ী করছে এবং অমিত শাহ নেহরু কে! সরকার যেতে যাচ্ছে, কিন্তু আপনারা শুধরাবেন না!’