টিডিএন বাংলা ডেস্ক: লেখাপড়া করেই মানুষ বড় হয়। সমাজের অনেক উন্নতি করে। কিন্তু বিজেপি নেতা ও উত্তরপ্রদেশের জেলমন্ত্রী জয় কুমার সিং এর মতে তেমনটা নয়। তাঁর মতে শিক্ষিতরাই সমাজকে ধ্বংস করছে। তারাই নাকি সমাজের অপদার্থ। যারা শিক্ষিত তারাই সমাজটাকে নষ্ট করছে। তাই নেতাদের শিক্ষিত হওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই। হ্যাঁ শুনতে অবাক লাগলেও এমনটাই বিতর্কিত মন্তব্য করে শিরোনামে ওই বিজেপি নেতা। বুধবার শেঠ রামগুলাম প্যাটেল মেমোরিয়াল কলেজে একটি অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন জয় কুমার। সেখানেই এধরনের মন্তব্য করে বসেন।

তাঁর মতে, যারা শিক্ষিত তাদের জন্যই সমাজ নষ্ট হচ্ছে। নেতাদের শিক্ষিত হওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই বলেও জানিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের জেলমন্ত্রী। ‘নেতাদের শিক্ষিত হতে হবে এমন কোনও মানে নেই। আমি মন্ত্রী, আমার ব্যক্তিগত সচিব রয়েছে, কর্মচারী রয়েছে। জেল আমাকে থোরি চালাতে হয়। জেলে আধিকারিকরা বসে আছেন। জেলার বসে আছে। তারাই চালাবেন।’

একই সঙ্গেই তিনি যোগ করেন, ‘‌যখন শিক্ষিত ডাক্তার এবং ইঞ্জিনিয়াররা একসঙ্গে বসেন, তখন অনেক সময়ই তাঁরা রাজনীতিকদের নিয়ে কথা বলেন। তাঁরা বলেন, নেতারা হাইস্কুল পাশ। তাঁরা মনে করেন, নিরক্ষর মানুষরাই শিক্ষিত সমাজকে চালান। আসলে এই শিক্ষিতরাই কিন্তু সমাজের পরিবেশ নষ্ট করছেন। অন্যদের ভুল বোঝাচ্ছেন। আসলে এরা রাজনীতির কিছুই বোঝেন না। নেতাদের পড়াশোনা করার কোনও প্রয়োজন নেই। তাঁদের কেবল দূরদৃষ্টি সম্পন্ন হতে হয়।’‌

এখানেই থেমে থাকেননি, জেলমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমায় কেউ কখনও নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য বলেনি। আমি নিজের ইচ্ছায় নেতা হয়েছি। আমি ভেবেই রেখেছিলাম যে রাজনীতিতেই কিছু করতে চাই, কারণ যখনই কোনও সমস্যা সৃষ্টি হত আমি সেটার সমাধান খুঁজে দিতাম।’