টিডিএন বাংলা ডেস্ক : একসঙ্গে পৃথিবীতে এসেছিল তারা। নিয়তি তাদের একসঙ্গেই পৃথিবী থেকে নিয়ে গেল। গত বুধবার গুরগাওয়ের জামালপুরে বদ্ধ গাড়ির মধ্যে আটকা পড়ে মারা যায় পাঁচ বছরের যমজ দুই বোন হারসা ও হারিসীতা।
বাবা–মায়ের সঙ্গে মিরাটে থাকত হারসা ও হারিসীতা। তাদের বাবা একজন সেনা কর্মকর্তা। গ্রীষ্মের ছুটিতে জামালপুরের পাতৌদি এলাকায় দাদার বাড়িতে বেড়াতে যায় তারা। সেখানে খেলতে গিয়ে পুরোনো একটি গাড়ির মধ্যে আটকা পড়ে দুই বোন। ধারণা করা হচ্ছে, আটকে পড়ার দুই ঘণ্টা পর গরমে নিশ্বাস বন্ধ হয়ে মারা যায় তারা।
পরিবারের সদস্যরা জানান, হারসা ও হারিসীতা দাদার পুরোনো মডেলের একটি হিউণ্ডাই গাড়ি রয়েছে। গাড়িটির দরজার লক নষ্ট ছিল, জানালাও আটকে যেত প্রায়। তবে গাড়িটি শিশু দুটির খুব প্রিয় ছিল। প্রায় সময়ই ওই গাড়িতে খেলতে যেত তারা।
গতকাল বিকেল চারটার দিকে বাড়ির লোকেরা যখন শিশু দুটি আশপাশে কোথাও নেই টের পেলেন, তখন প্রথমেই তাঁরা ছুটে যান গাড়ির কাছে। গাড়িটি বাড়ির সামনে পার্ক করে রাখা ছিল। ভেতরে তাঁরা অচেতন অবস্থায় দুই বোনকে পড়ে থাকতে দেখেন। তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
গাড়িটির লক দেখে বোঝা যায় শিশু দুটি গাড়ি থেকে বের হতে লকটি খোলার চেষ্টা চালিয়েছিল।
শিশুদের বাবা বলেন, গতকালই তার মেয়েদের মিরাটে ফিরে যাওয়ার কথা ছিল। কয়েক দিনের মধ্যেই তাদের স্কুল খুলবে। স্কুলে তারা খুবই বুদ্ধিমান ও চৌকস হিসেবে জনপ্রিয় ছিল।
এর আগে ২০১৫ সালেও গুরগাঁওয়ে গাড়ির ভেতর আটকা পড়ে মারা যায় দুই বোন। সম্প্রতি দিল্লিতে বাড়ির গ্যারেজে পার্ক করা গাড়ির ভেতর আটকে পড়ে মৃত্যু হয় ছয় বছরের এক শিশুর।⁠⁠⁠⁠