টিডিএন বাংলা ডেস্ক: হরিয়ানায় বিধানসভা নির্বাচনের কয়েক মাস আগে ইন্ডিয়ান ন‍্যাশনাল লোকদল (আইএনএলডি) -এর দুজন বিধায়ক বিজেপিতে যোগ দেন। মঙ্গলবার মুখ‍্যমন্ত্রী মনোহরলাল খাট্টার ও রাজ‍্য বিজেপি সভাপতি সুভাষ বারালার উপস্থিতিতে দুই আইএনএলডি বিধায়ক গেরুয়া দলে নাম লেখান। এর মধ্যে একজন সংখ্যালঘু বিধায়ক রয়েছেন।

এই দুজন হলেন জুলানা বিধানসভা কেন্দ্র থেকে জয়ী পরমিন্দর ধুল ও নু থেকে জয়ী জাকির হুসেন। এছাড়া জয়নায়ক জনতা পার্টির রোহতক জেলার সভাপতি ধরমপাল মাক্রোলিও আজ চন্ডীগড়ে বিজেপিতে যোগ দেন। দুই আইএনএলডি বিধায়ক বলেন, তারা মঙ্গলবার হরিয়ানা বিধানসভার অধ‍্যক্ষ কানোয়াল পালের সঙ্গে দেখা করে পদত্যাগ পত্র দাখিল করেছেন।

হরিয়ানায় কয়েক মাস আগে আইএনএলডি প্রধান বিরোধী দল ছিল। বর্তমানে আইএনএলডি-র কাছে মাত্র সাতজন বিধায়ক রয়েছে। এর আগে এর সংখ্যা ছিল ১৯। ১৯ জন আইএনএলডির বিধায়কের মধ্যে দুজন মারা গিয়েছেন। চারজন আইএনএলডি-র বিধায়ক জননায়ক জনতা পার্টিতে এর যোগ দিয়েছেন। পাঁচজন আইএনএলডি-র বিধায়ক বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। লোকসভা নির্বাচনের আগে মুহূর্তে এর মধ্যে তিনজন আবার বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। এখন আরও দুজন যোগ দিলেন। একজন আইএনএলডি বিধায়ক কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন।

মুখ‍্যমন্ত্রী মনোহরলাল খাট্টার বলেছেন, বিজেপির পরিবার দিন দিন সম্প্রসারিত হচ্ছে। ৯০ সদস‍্যের হরিয়ানা বিধানসভায় বর্তমানে ৮৪ জন বিধায়ক রয়েছেন বিজেপির। তিনি দাবি করেন, আগামী অক্টোবর মাসে অনুষ্ঠেয় বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি এককভাবে ৭৫ টি আসন পাবে। উল্লেখ্য, ওম প্রকাশ চৌথালা পরিবারে ভাঙন দেখা দিয়েছে। এই ভাঙনের কারণে আইএনএলডি- ও ভাঙছে।