টিডিএন বাংলা ডেস্ক: কয়েকদিন আগে এক দেশ, এক ভাষা নীতি দেখিয়ে হিন্দি ভাষাকে রাষ্ট্রভাষা করার কথা বলেছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। অমিত শাহের এই মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা জানিয়েছে বিরোধীরা। অমিতের বিরোধিতা করে সিপিএম নেতা মোহাম্মদ সেলিম বলেন, অমিত শাহ দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে নয় একজন আরএসএস নেতা হিসেবে এমন মন্তব্য করেছেন। এবার অমিত শাহের মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা জানাল দলেরই কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদুরাপ্পা। তিনি বলেন, আমরা কখনই কন্নড়কে লঘু করে দেখব না। কর্ণাটকে প্রথম ভাষার মর্যাদা পাবে কন্নড়ই।

সোমবার টুইট করে ভাষা নিয়ে তৈরী হওয়া বিতর্কে নিজের অবস্থান ব্যক্ত করেন ইয়েদুরাপ্পা। তিনি লেখেন, “দেশের প্রতিটি ভাষাই সমান।” অর্থাত্ রাষ্ট্রভাষা হিসাবে হিন্দিকে যে আলাদা করে গুরুত্ব দিতে তিনি নারাজ, তা স্পষ্ট করে দিলেন ইয়েদুরাপ্পা। কর্ণাটকে প্রথম ভাষা হিসাবে কন্নড়কে তিনি গুরুত্ব দেবেন, সাফ বক্তব্য ইয়েদুরাপ্পার। তিনি লেখেন, “আমরা কখনই কন্নড়কে লঘু করে দেখব না।” একটি ভাষার সঙ্গে জড়িয়ে থাকে মানুষের সংস্কৃতি, সে কথাও মনে করিয়ে দিলেন ইয়েদুরাপ্পা।

সম্প্রতি হিন্দি দিবসে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও ভারতী জনতা পার্টির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের মন্তব্যকে ঘিরে তৈরী হওয়া বিতর্কের প্রেক্ষিতে এভাবেই নিজের অবস্থান পরিস্কার করে দিলেন ইয়েদুরাপ্পা। হিন্দিকে রাষ্ট্রভাষা করা নিয়ে অমিত শাহের প্রস্তাবের বিরোধিতা করেছেন বিরোধী দলনেতারা। এবার দলের অন্দরের হেভিওয়েট নেতাই তাঁর নীতির সমালোচনা করলেন।