টিডিএন বাংলা ডেস্কঃ আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি দিল্লি বিধানসভা নির্বাচন। আর তাঁর আগেই ধর্ম নিরপেক্ষ বিশ্বের সবচেয়ে বড় গণতান্ত্রিক দেশ ভারতে বেপরোয়া মন্তব্য করলেন বিজেপি সাংসদ। দিল্লিতে আমাদের সরকার ক্ষমতায় এলেই সরকারি জমিতে যত মসজিদ ও মাদ্রাসা আছে, সব ভেঙে গুড়িয়ে দেব, শনিবার এক সভায় এমনটাই বিতর্কিত মন্তব্য করলেন বিজেপি সাংসদ দিল্লির বিজেপি সাংসদ পরবেশ সাহিব সিং ভার্মা। এদিন তিনি সভায় বলেন, ‘‌দিল্লির বহু সরকারি জমিতে মসজিদ রয়েছে, এমনকি মাদ্রাসাও রয়েছে। দিল্লিতে বিজেপি ক্ষমতায় এলে ওই মসজিদ এবং মাদ্রাসাগুলি ভেঙে গুড়িয়ে দেওয়া হবে।’‌

এখানেই শেষ নয়, ওই বিজেপি সাংসদ এরপর একটি টুইট করেন, সেখানে তিনি লেখেন, ‘‌খবর পেয়েছি দিল্লির সরকারি জমিতে মোট ৫৪টি মসজিদ এবং মাদ্রাসা আছে। তার একটি তালিকা তৈরি করে লেফটেন্যান্ট গভর্নরকেও পাঠানো হয়েছে। ক্ষমতায় এলেই সব সরিয়ে দেব। সরকারি জমিতে কোনও মন্দির ও গুরুদ্বার আছে কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। কিন্তু জানিয়ে রাখি, দিল্লির সরকারি জমিতে কোনও মন্দির বা গুরুদ্বার নেই। যা আছে, সবকটি মসজিদ।’‌

উল্লেখ্য, ১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর অযোধ্যায় বিষাক্ত এক সাম্প্রদায়িক শক্তি বাবরি মসজিদ ধ্বংস করেছিল। দীর্ঘ ২৭ বছর পর সেই মামলার দায়দান করে সুপ্রিম কোর্ট। কিন্তু সেই জায়গা রামলালাকে রাম মন্দির নির্মাণের জন্য দেয় দেশের শীর্ষ আদালত। তবে বিজেপি সাংসদের এমন বিতর্কিত মন্তব্য রাজনৈতিক মহলে জোর চর্চা শুরু হয়েছে।

সুত্র- হিন্দুস্থান ডট কম, এনডিটিভি