টিডিএন বাংলা ডেস্ক: মোদীর খাস তালুক থেকে শুরু এবারের নির্বাচনী প্রচার। তারপর গন্তব্য উত্তর প্রদেশ। রাজনীতিতে পা রেখেই তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন, তাঁকে সমীহ না করে উপায় নেই। তিনি প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢরা। তাই কি খানিকটা দ্বিধায় পড়ে যোগী আদিত্যনাথকে বলতে হল প্রিয়ঙ্কা রাজনীতিতে আসায় বিজেপি কিছু যায় আসে না? আসলে প্রিয়ঙ্কাকে বিজেপি ঠেকায় পড়ে গুরুত্ব না দিয়ে পারছে না। এটাই তার প্রমাণ। তাই আদিত্যনাথ মুখে যাই বলুন, প্রিয়ঙ্কাকে সমীহ করতেই হচ্ছে বিজেপির।

সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে যোগী আদিত্যনাথ বলেন, কংগ্রেস প্রিয়ঙ্কাকে সাধারণ সম্পাদক করেছে। এটা তাদের দলের অভ্যন্তরের ব্যাপার।

এসপি-বিজেপি জোট নিয়ে কার্যত তাচ্ছিল্যের সুর শোনা গেল উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর গলায়। তিনি বলেন, এটা ফল্স অ্যালার্ম। অর্থাৎ ফাঁকা আওয়াজ। মুখে যাই বলুন, প্রিয়ঙ্কাকে নিয়ে বিজেপির মাথা ব্যথার কারণ আছে। কারণ তিনি জলপথে অভিনব প্রচার শুরু করবেন। দলিতদের মধ্যে প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা শুরু করে দিয়েছেন। খানিকটা সন্দিহান হয়েই কি আদিত্যনাথের গলায় এই সুর?