টিডিএন বাংলা ডেস্ক: জম্মু-কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা তুলে দেওয়ার পর থেকে এক নাগাড়ে চলছে অচলাবস্থা। পরিস্থিতি এখনও স্বাভাবিক নয় বলে একাধিকবার অভিযোগ করেছে বিরোধীরা। সে রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীদের দীর্ঘদিন ধরেই গৃহবন্দি করে রাখা হয়। সম্প্রতি অনেক নেতাকে ছাড়া হলেও আটকে রাখা হয়েছে ন্যাশনাল কনফারেন্সের নেতা তথা জম্মু–কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহকে। কিন্তু তাকে কেন এতদিন ধরে গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে? এবার এই প্রশ্নের উত্তর চেয়ে জম্মু–কাশ্মীর সরকারকে নোটিশ জারি করল সুপ্রিম কোর্ট।

জম্মু–কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বাতিল করার পরেই বন্দি করা হয় উপত্যকার তামাম বিরোধী নেতাদের। ন্যাশনাল কনফারেন্সের ফারুক আবদুল্লা, ওমর আবদুল্লাহ, পিডিপি–র মেহবুবা মুফতি, তালিকায় কে নেই। কয়েকদিন আগেই সেই বন্দিদশা কাটলেই জনসুরক্ষা আইনে ফের ওমর আবদুল্লাহকে গ্রেপ্তার করা হয়। আর তারপর ওমরের মুক্তির দাবিতে সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন জমা দেন ওমরের বোন সারা আবদুল্লা পাইলট। অবিলম্বে জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে মুক্তি দেওয়া হোক, শীর্ষ আদালতে আবেদন বলেন তিনি। আর সেই আবেদনের শুনানিতেই সুপ্রিম কোর্ট এবার নোটিস পাঠাল জম্মু ও কাশ্মীর প্রশাসনকে। যদিও আইনজীবী কপিল সিব্বলের করা জরুরি শুনানির আবেদন খারিজ করে দিয়ে দেশের শীর্ষ আদালত জানিয়েছে, আগামী ২ মার্চ মামলাটির পরবর্তী শুনানি হবে। ওই দিনের মধ্যেই নোটিসেরও জবাব দিতে হবে প্রশাসনকে।