টিডিএন বাংলা ডেস্ক : ইতিহাস গড়ে ছিলেন ৫০ অনুর্ধ্ব কনকদুর্গা। কিন্তু নিজের বাড়িতে লড়াইয়ে জিতলেন না তিনি। মন্দিরে প্রবেশ করার অপরাধে নিজের শাশুড়ি মায়ের হাতে নিগৃহীত হলেন কনক দূর্গা। মন্দিরে প্রবেশ করার পরের দিন পুলিশী নিরাপত্তায় বাড়ি ফিরেছিলেন কনক। প্রথমে তাঁকে বাড়িতে ঢোকার অনুমতি না দিলেও পরে মেনে নিয়েছিলেন কনকের শাশুড়ি। কিন্তু এর পর থেকেই ঘরে লেগে থাকতো নিত্য অশান্তি। কনকদূর্গা জানায় যে উঠতে বসতে কথা শোনাতেন তাঁর শাশুড়ি শেষ পর্যন্ত সোমবার গায়ে হাত তোলেন তিনি এবং কাঠের তক্তা দিয়ে মেড়ে কনকের মাথা ফাটিয়ে দেন। বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন কনকদূর্গা। পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্ত করছে।