স্পোর্টস ডেস্ক, টিডিএন বাংলা, কলকাতা : আজ সন্ধ্যার পরপরই শহরে ফিরল আইএসএল জয়ী অ্যাটলেটিকো দে কলকাতার ফুটবলাররা। সঙ্গে ছিলেন দলের কর্মকর্তারাও। কলকাতার কুয়েস্ট মলে সোমবার সন্ধ্যাতেই দলের সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়েছিল টিম ম্যানেজমেন্টের পক্ষ থেকে।

এদিনের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ঘিরে লোকের উৎসাহ ছিল চোখে পড়ার মত। গ্রাউন্ড ফ্লোরে সংর্বধনার মঞ্চ করা হয়েছিল কিন্তু মলের লবিগুলিতে মানুষের ভিড় ছিল আশ্চর্যজনক। এটলেটিকোর জয়ে উল্লসিত জনতার স্লোগানে কেপে উঠছিল মল।
এদিন বিকেল নাগাদ কলকাতা বিমানবন্দরে এসে পৌছান এটিকে ফুটবলাররা। সেখানে হাজির ছিল প্রায় শ’দুয়েক সমর্থক। ওখান থেকে পুরো দল সহ টিম মম্যানেজমেন্ট চলে আসে মলে। মলের গোটা গ্রাউন্ড ফ্লোর অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানের জন্য সুন্দর করে সাজানো হয়েছিল। সিএবির মিটিং থাকার দরুন অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারেননি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় কিন্তু দলের অন্যতম মালিক সঞ্জীব গোয়েঙ্কা, উৎসব পরেখ ও হর্ষ নেওটিয়ারা সানন্দে উপভোগ করেন এই অনুষ্ঠান।
এটিকে-র থিম সং দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠান। মঞে ঢাকা দিয়ে রাখা আইএসএল চ্যাম্পিয়ন ট্রফি খোলা হল। এরপর চলল দেশী – বিদেশী ফুটবলারদের মাতাল নাচ। হিউম, জুয়েল রাজা হাতছাড়া করেননি এই সুযোগ।
কোচ হোজে মলিনাকে আগামী বছরের জন্যও রেখে দিচ্ছে কলকাতা, এই অনুষ্ঠানে বক্ত্যব্য রাখতে গিয়ে এমনটাই জানালেন সঞ্জীব গোয়েঙ্কা। তিনি আরো বলেন, মলিনা দেশে ফেরার আগেই টিম নিয়ে এক প্রস্থ আলোচনাও সেরে নিয়েছেন তাঁরা
অনুষ্ঠান মাতিয়ে রাখেন ফাইনাল ম্যাচ জয়ের অন্যতম কারিগর, যার পেনাল্টি শুট আউটে করা শেষ গোলে নেচে উঠেছিল পুরো বাংলা, সেই জুয়েল রাজা উপস্থিত জনতাকে তাতাতে তাদের সঙ্গে স্লোগানে গলা মেলান।দলের অন্যতম তারকা খেলোয়াড় হিউম বলেন, “আমরা কাজটা সম্পূর্ণ করতে পেরেছি ! যে ভাবে মানুষ আমাদের সমর্থন করেছেন তার জোরেই আমরা চ্যাম্পিয়ন হতে পেরেছি। আশা করব, আগামী বছরও এটিকে এ রকম সমর্থন পাবে।”