টিডিএন বাংলা ডেস্ক: চেন্নাইকে সরিয়ে সাময়িকভাবে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ টেবিলের শীর্ষস্থান দখল করেছিল দিল্লি ক্যাপিটালস। ঘরের মাঠে দিল্লিকে হারিয়ে এক নম্বরের সিংহাসন ছিন্নিয়ে নিল সিএসকে। শ্রেয়াস আইয়ারদের ৮০ রানের বিশাল ব্যবধানে পরাজিত করে ধোনিবাহিনী।

টসে জিতে চেন্নাইকে প্রথমে ব্যাট করতে ডাকে দিল্লি। মন্থর শুরু করলেও শেষদিকে ঝড় তুলে চেন্নাই নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৭৯ রান তোলে। অনবদ্য হাফ সেঞ্চুরি করেন সুরেশ রায়না। স্বাভাবসুলভ আগ্রাসনে দলের ইনিংসে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখেন ধোনি। বল হাতে নজর কাড়েন সূচিথ।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ক্যাপিটালস একশোর গণ্ডিও টপকাতে পারেনি। ১৬.২ ওভারে মাত্র ৯৯ রানে অলআউট হয়ে যায় দিল্লি। শ্রেয়াস আইয়ার ছাড়া বলার মতো রান করতে পারেননি দিল্লির আর কোনও ব্যাটসম্যানই। সিএসকে’র দুই স্পিনার ইমরান তাহির ও রবীন্দ্র জাদেজার সাঁড়াশি আক্রমণে অসহায় দেখায় দিল্লিকে। অবশ্য মহেন্দ্র সিং ধোনির দুরন্ত উইকেটকিপিংকেও কৃতিত্ব দিতে হয় চেন্নাইয়ের জয়ের জন্য।

চেন্নাই ইনিংসের শুরুটা মনে রাখার মতো হয়নি। খাতা খোলার আগেই আউট হন শেন ওয়াটসন। ডু’প্লেসি ২টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে ৩৯ রান করলেও খরচ করেন ৪১টি বল। তা সত্ত্বেও চেন্নাই দেড়শো রানের গণ্ডি পেরিয়ে যায় সুরেশ রায়নার হাফ সেঞ্চুরি ও শেষবেলায় ধোনি-জাদেজার ঝোড়ো ব্যাটিংয়ের জন্য।

পাওয়ার প্লে’তে ১ উইকেটে মাত্র ২৭ রান, ১০ ওভারে ৫৩/১ এবং ১৫ ওভারে ৩ উইকেটের বিনিময়ে ১০২ রান তোলা চেন্নাই শেষ পাঁচ ওভারে চেন্নাই এক উইকেট হারিয়ে ৭৭ রান যোগ করে।

রায়না ৮টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে ৩৭ বলে ৫৯ রান করে আউট হন। ক্রিজ ছাড়ার আগে জাদেজা ২টি চার ২টি ছক্কার সাহায্যে ১০ বলে ২৫ রান করেন। রায়ডুকে (৫) সঙ্গে নিয়ে ধোনি অপরাজিত থাকেন ২২ বলে ৪৪ রান করে। চেন্নাই অধিনায়ক ৪টি চার ও ৩টি ছক্কা মারেন। দিল্লির হয়ে সূচিথ ২৮ রানে ২টি উইকেট নেন। ১টি করে উইকেট পেয়েছেন ক্রিস মরিস ও অক্ষর প্যাটেল।

পাল্টা ব্যাট করতে নেমে দিল্লি প্রথম ওভার থেকেই উইকেট হারাতে থাকে। শিখর ধাওয়ানের ১৯ ও শ্রেয়সের ৪৪ ছাড়া আর কেউই দু’অঙ্কের রানে পৌঁছতে পারেননি। পৃথ্বী শাহ ৪, ঋষভ পান্থ ৫, কলিন ইনগ্রাম ১, অক্ষর প্যাটেল ৯, রাদারফোর্ড ২, মরিস ০, সূচিথ ৬, অমিত মিশ্র ৮ রান করে আউট হন। বোল্ট অপরাজিত থাকেন ১ রানে।

তাহির ১২ রানের বিনিময়ে ৪টি উইকেট নেন। জাদেজা নেন ৯ রানে ৩টি উইকেট। এছাড়া হরভজন সিং ও দীপক চাহার নিয়েছেন একটি করে উইকেট। জাদেজার একই ওভারে ধোনি মরিস ও শ্রেয়াসকে স্ট্যাম্প আউট করেন। অধিনায়কোচিত ব্যাটিং ও দুরন্ত কিপিংয়েক জন্য ম্যাচের সেরা হয়েছেন ধোনি।