টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ক্রিকেট কিংবা ফুটবলের বিভিন্ন সময় তারকাদের উপর বিভিন্ন অভিযোগ উঠেছে। এর আগে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল। এবারে ব্রাজিলের ফুটবল তারকা নেইমারের উপরেও এক মহিলা ধর্ষণের এনেছেন। শনিবার স্বাভাবিক ভাবেই পিএসজি স্ট্রাইকারকে নিয়ে ব্রাজিলের সংবাদমাধ্যমে এখবর প্রকাশিত হওয়ার পর থেকেই বিশ্বজুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।

ইতিমধ্যেই সাও পাওলো থানায় এনিয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। সেই অভিযোগ এবং বিভিন্ন ওয়েবসাইটের সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, অভিযোগকারী ব্রাজিলের বাসিন্দা। ইনস্টাগ্রামে নেইমারের সঙ্গে সাক্ষাৎ হয়েছিল তাঁর। তারপরই মেসেজে কথাবার্তা এগোয়। নেইমারই তাঁকে প্যারিসের একটি হোটেলে দুপুরে ডেকে পাঠিয়েছিলেন। অভিযোগ, সেখানেই মহিলার অনুমতি ছাড়া তাঁর সঙ্গে সঙ্গমে লিপ্ত হন ব্রাজিল ফুটবলের পোস্টার বয়।

অভিযোগকারিনী পুলিশকে আরও জানান, হোটেলে যাওয়ামাত্র নেইমার তাঁর সঙ্গে ভাল ব্যবহারই করেন। যদিও তিনি মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন। কিন্তু কিছুক্ষণ পরই রূপ বদলায় নেইমারের। যৌন মিলনের জন্য উত্তেজিত হয়ে ওঠেন তিনি। রীতিমতো জোর করে মহিলাকে যৌন হেনস্তা করেন। তবে নেইমারের তরফে সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তাঁর বাবা নেইমার স্যান্টোস। যিনি ফুটবল তারকার এজেন্টও। একটি টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, এখবর সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। নেইমার কোনও অপরাধমূলক কাজ করেননি। তিনি বলেন, আসলে তাঁর ছেলেকে ব্ল্যাকমেল করার চেষ্টা করা হচ্ছে। একথা সত্যি যে ওই মহিলার সঙ্গে একবার ঘুরতে বেরিয়েছিলেন নেইমার। কিন্তু তারপর থেকে তাঁর সঙ্গে আর দেখা করতে চাননি। আর সেই কারণেই নেইমারকে বদনাম করে টাকা হাতাতে চাইছেন মহিলা। আইনজীবীর কাছে এই সংক্রান্ত সমস্ত প্রমাণও জমা দিয়েছেন তিনি।

স্যান্টোসের কথায়, “আমার ছেলের বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগই উঠতে পারে। কিন্তু আমি জানি ও কীরকম ছেলে। ওকে যে ফাঁসানো হয়েছে, সে নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই।” গোটা ঘটনা অস্বীকার করেছেন নেইমার নিজেও। তিনি আপাতত আসন্ন কোপা আমেরিকার প্রস্তুতিতে ব্যস্ত। উল্লেখ্য, এর আগে পর্তুগিজ স্ট্রাইকার রোনাল্ডোর বিরুদ্ধেও ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল। যে মামলা থেকে এখনও নিষ্পত্তি পাননি সিআর সেভেন