টিডিএন বাংলা ডেস্ক: লড়াইটা দুইয়ের সঙ্গে পাঁচের- ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া। এবারে বিশ্বকাপের আগে বিশ্বজুড়ে ক্রিকেট বোদ্ধাদের কণ্ঠে ফেবারিট হিসেবে যাদের নাম শোনা গেছে তাদের মধ্যে ওপরের দিকেই এই দু’দল। বলা হচ্ছে- ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের বিগ ম্যাচ এটি। এ ম্যাচ ঘিরে ছড়াচ্ছে রোমাঞ্চও। দুই শক্তিশালী প্রতিপক্ষের লড়াই দেখতে মুখিয়ে আছেন সমর্থকরাও।

রোববার আজ ইংল্যান্ডের রাজধানী লন্ডনের দ্য ওভাল স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে ভারতীয় সময় দুপুর ৩টায়। সরাসরি সম্প্রচার করবে স্টার স্পোর্টস ওয়ান ও টু চ্যানেলে।

চলতি বিশ্বকাপে দু’টি ম্যাচ জিতে আছে ফুরফুরে মেজাজে আছে অস্ট্রেলিয়া। ভারতও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয় দিয়ে শুরু করেছে ওয়ার্নার-স্মিথরা। ফলে আজ যারা জিতবে তারা অনেকটা এগিয়ে যাবে।

আইসিসির প্রকাশিত সবশেষ র‌্যাকিংয়ে ১২১ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে ভারতের অবস্থান দ্বিতীয় আর বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া ১০৯ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে আছে ৫ম স্থানে।

পরিসংখ্যানে অবশ্য ম্যাচের আগে এগিয়ে থাকবে অস্ট্রেলিয়াই। বিশ্বকাপে ভারতীয় দলটির বিপক্ষে অজিরা মুখোমুখি হয়েছে ১১ বার। এর মধ্যে জয় এসেছে আটটিতে। অন্যদিকে ভারতের জয় মাত্র তিনটি। বিশ্বকাপে এই দুই দলের লড়াইয়ের কথা বললে সবার আগেই স্মরণ করতে হয় ২০০৩ সালের ফাইনালের কথা। সেবার ফাইনালে অস্ট্রেলিয়া সেঞ্চুরিয়নে এই ভারতকে হারিয়েই জিতেছিল টানা দ্বিতীয় শিরোপা।

আবার ২০১১ সালে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পথে কোয়ার্টার ফাইনালে ভারত হারিয়েছিল অস্ট্রেলিয়াকে। আবার এই ভারতই গেল বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে ছিটকে যায়।

বিশ্বকাপ শুরুর আগেই ভারতের মাটিতেই বিরাট কোহলির দলের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে জিতেছে অ্যারন ফিঞ্চরা। সেটাও আমার স্টিভেন স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নারের মতো তারকা ক্রিকেটারের অনুপস্থিতিতে। এবার নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফিরেছেন এই দুই ক্রিকেটার। ফলে অস্ট্রেলিয়ার আত্মবিশ্বাসের পারদ আরও তুঙ্গে।

দুশ্চিন্তার কারণও আছে অস্ট্রেলিয়ার। কারণ সর্বশেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ম্যাচে দলটি জিতলেও একদমই ফর্মে ছিল না দলের টপ অর্ডার।

অন্যদিকে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৬ উইকেটে হারিয়ে বিশ্বকাপের যাত্রা শুরু করেছে ভারত। তবে বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতি ম্যাচে কিউই পেসারদের বোলিং তোপে ভেঙে পড়ে ভারতীয় ব্যাটিং লাইন আপ। আর অজিদের সব থেকে বড় শক্তির জায়গাটিও এই পেস বোলিং। তাই হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের সম্ভাবনা থাকছে এই ম্যাচে।

বিরাট কোহলি অধিনায়ক হিসেবে দারুণ শুরু করেছেন বিশ্বকাপে। আর সেই সাথে ব্যাটেও আছেন অসাধারণ ছন্দে। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে কোহলির ব্যাট হাসতে না পারলেও রোহিত শর্মার ব্যাট ঠিকই হেসেছে। দলকে জিতিয়ে শেষ পর্যন্ত ১২২ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি।

কেবল কোহলির দলের ব্যাটসম্যানরাই দারুণ ফর্মে নেই, সাথে বোলারও আলো ছড়াচ্ছেন ক্রিকেট দুনিয়ায়। আইসিসির বোলিং র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষে অবস্থান করছেন পেসার জাসপ্রিত বুমরাহ। আর ক্রিকেট বিশ্লেষকরা তো জানিয়েই দিয়েছেন এবারের বিশ্বকাপে দারুণ পারফরম্যান্স করবে বুমরাহ আর ভারতের জয়ে রাখবেন সামনে থেকে অবদান।

শেষ পর্যন্ত জমজমাট লড়াইয়ের অপেক্ষায় ক্রিকেট বিশ্ব। ভারত অস্ট্রেলিয়ার মহারণে কে হবে জয়ী অপেক্ষা তার ফলাফল জানতে।

বিশ্বকাপে দুই দেশের ম্যাচ

১১টি, অস্ট্রেলিয়া জয়ী: ৮টি। ভারত জয়ী: ৩টি। মুখোমুখি দুই দল মোট ম্যাচ: ১৩৬টি। অস্ট্রেলিয়া জয়ী: ৭৭টি। ভারত জয়ী: ৪৯টি। ড্র: ০টি ম্যাচ পরিত্যক্ত: ১০টি।

ভারত স্কোয়াড:-

বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), রোহিত শর্মা (সহঅধিনায়ক), শেখর ধাওয়ান, মহেন্দ্র সিং ধোনি (উইকেটরক্ষক), দীনেশ কার্তিক, বিজয় শঙ্কর, লোকেশ রাহুল, কেদার যাদব, হার্দিক পাণ্ডিয়া, জাসপ্রিত বুমরাহ, ভুবনেশ্বর কুমার, মোহাম্মদ সামি, রবীন্দ্র জাদেজা, কুলদীপ যাদব ও যুগবেন্দ্র চাহাল।

অস্ট্রেলিয়া স্কোয়াড:-

অ্যারন ফিঞ্চ (অধিনায়ক), জেসন বেহেনড্রফ, অ্যালেক্স ক্যারি (উইকেটরক্ষক), নাথান কোল্টার-নাইল, প্যাট কামিন্স, উসমান খাজা, নাথান লায়ন, শন মার্শ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, কেন রিচার্ডসন, স্টিভ স্মিথ, মিশেল স্টার্ক, মার্কাস স্টয়নিস, ডেভিড ওয়ার্নার ও অ্যাডাম জাম্পা।