স্পোর্টস ডেস্ক, টিডিএন বাংলা : অফস্টাম্পের বাইরে টার্ন করা বলকে স্টাম্পে ডেকে আনলেন ম্যাথু ওয়েড। কুলদিপ যাদবের প্রথম উইকেট, অস্ট্রেলিয়ার ম্যাচ থেকে ছিটকে যাওয়ার আরেক ধাপ। যাদবের পরের বল নিরীহ ফুলটস মতন, অ্যাশটন অ্যাগার খেলতে গেলেন আরও নিরীহভাবে। মিস করলেন, এলবিডাব্লিউ হলেন। রিভিউ নেওয়ার মানে নেই, অস্ট্রেলিয়া আরেক ধাপ ছিটকে গেল, যাদব দাঁড়ালেন হ্যাটট্রিকের সামনে। ব্যাটসম্যান প্যাট কামিন্স, যাদবের গুগলিটা বেরিয়ে যাচ্ছিল। বেশ আগ বাড়িয়ে খেলতে গেলেন, যে ক্যাচটা গেল, অন্তত ধোনির সেটা মিস করার কথা নয়। করলেনও না। চেতন শর্মা ও কপিল দেবের পর তৃতীয় ভারতীয় বোলার হিসেবে ওয়ানডে হ্যাটট্রিক পেলেন যাদব, ইডেন গার্ডেনস লাফাতে থাকলো, মাঠে এগারজন ভারতীয় লাফাতে থাকলেন। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে অস্ট্রেলিয়াও যেন লাফাতে লাফাতে ছিটকেই গেল!


ইডেনের নীচু, ধীরগতির আর বড় বড় টার্নের উইকেটে ২৫৩ রানের লক্ষ্যটা খুব সহজ ছিল না অস্ট্রেলিয়ার জন্য। ৯ রানের মাঝেই দুই ওপেনার চলে গিয়ে সেটাকে বানালেন আরও কঠিন। স্টিভেন স্মিথ ও ট্রাভিস হেডের ৭৬ রানের জুটি পথ দেখাচ্ছিল অস্ট্রেলিয়াকে, ইয়ুজভেন্দ্র চাহালের ফুলটসে মিডউইকেটে ক্যাচ দিয়ে যেন মাথা খারাপের মতোই কিছু করলেন হেড। ভারতীয় দল পেল মহামূল্যবান ব্রেকথ্রু, পথ হারানোর প্রথম ধাপ পেরুলো অস্ট্রেলিয়া। ব্যাটিং করা অজিদের জন্য যেন হয়ে পড়ল আরও কঠিন, চাহালের বলে ম্যাক্সওয়েলকে স্টাম্পিং করে ধোনির উল্লাসই বলে দিচ্ছিল, ম্যাচে কিভাবে ফিরে এসেছে ভারত!
তবে ছিলেন স্মিথ, হারদিক পান্ডিয়ার বাউন্সারে পুলটা ঠিকঠাক করতে না পেরে দিলেন ক্যাচ দিলেন তিনিও। একটু আগেও ব্রেকথ্রুর জন্য হাপিত্যেশ করা ভারতই বনে গেল ইডেনের ফেবারিট। একদিক আগলে মার্কাস স্টোইনিস চলছিলেন অসম্ভবের পথে, তবে ৬২ রান করে শুধু একদিক থেকে চেয়েই চেয়েই দেখলেন অস্ট্রেলিয়ার অল-আউট হয়ে যাওয়া!
আগের দুইদিন বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ার উপক্রম হয়েছিল কলকাতা, তবে আজ বৃষ্টির নামগন্ধ নেই। টসে জিতে ব্যাটিং নিলেন কোহলি, অর্ধেক ইডেন উল্লাসের একচোট করে নিল তখনোই। ৬ষ্ঠ ওভারে রোহিত শর্মাকে ফিরিয়ে ইডেনকে ক্ষণিকের জন্য স্তব্ধ করলেন বটে এদিন অস্ট্রেলিয়ার সেরা বোলার ন্যাথান কোল্টার-নাইল। তবে কলকাতার স্বর্গোদ্যানে প্রাণ ফিরিয়ে আনলেন আজিঙ্কা রাহানে ও ‘কিং’ কোহলি। ১০২ রানের জুটি দুজনের, ৫৫ রান করে রান-আউট রাহানে। ভারতকে অবশ্য পথে রাখলেন কোহলিই, ৩১তম ওয়ানডে সেঞ্চুরিটা ছিল নাগালের মাঝেই। তবে অফস্টাম্পের বাইরে বলটা থার্ডম্যানে খেলতে গিয়েই করলেন দিনের প্রথম ভুল, সেঞ্চুরিটাও পাওয়া হলো না। ৯২ রানের ইনিংসে থাকলো ৮টি চার।
যাদব, পান্ডিয়া, ভুবনেশ্বরের ছোট ছোট ইনিংসে ভারতীয় দল করলো ২৫২, ইনিংসের শেষ বলে হলো অল-আউটও। তবে সে সংগ্রহটাই তো যথেষ্ট হলো অস্ট্রেলিয়াকে ম্যাচ থেকে ‘আউট’ করে দিতে!
ভারত : ২৫২ অল-আউট, ৫০ ওভার (কোহলি ৯২, রাহানে ৫৫, যাদব ২৪, কোল্টার-নাইল ৩/৫১, রিচার্ডসন ৩/৫৫)

অস্ট্রেলিয়া : ২০২ অল-আউট, ৪৩.১ ওভার (স্মিথ ৫৯, স্টোইনিস ৬২*, হেড ৩৯, যাদব ৩/৫৪,
ফল : ভারত ৫১ রানে জয়ী