টিডিএন বাংলা ডেস্ক: সরফরাজের সমালোচনা করে যেন কোনোভাবেই কূল করতে পাচ্ছেন না পাকিস্তানি সাবেক বোলার শোয়েব আখতার। তাঁর মতে সরফরাজ একজন ঘিলুহীন অধিনায়ক!

বহু আগে থেকেই চটে আছেন শোয়েব আখতার। পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদকে নিয়ে তাঁর অভিযোগের শেষ নেই। ভারতের বিপক্ষে কাল হারার পর পুরোনো রাগটাই যেন আবার আগুনের ফুলকি হয়ে বেরিয়ে এল। ‘আনফিট’ উপাধি দেওয়ার পর এবার সরফরাজকে ‘ঘিলুহীন অধিনায়ক’ বললেন পাকিস্তানের ইতিহাসের সবচেয়ে দ্রুত গতির বোলার শোয়েব।

বিশ্বকাপের শুরু থেকেই সরফরাজের সমালোচনায় মেতেছেন শোয়েব। মনে হচ্ছে পাকিস্তানের অধিনায়ক হিসেবে সরফরাজকে সহ্যই হচ্ছে না তাঁর। নিজের ইউটিউব চ্যানেলে সরফরাজের কঠোর সমালোচনা করেছিলেন এই পেসার। গতকাল ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে সরফরাজদের অসহায় আত্মসমর্পণের পর আবারও সরফরাজের ওপর রাগ ঝেড়েছেন সাবেক এই বোলার। বলেছেন, ‘আমি বুঝি না একটা অধিনায়ক কীভাবে এত ঘিলুহীন হতে পারে? সরফরাজ কি বুঝে না, আমরা রান তাড়া করতে পারি না! উইকেটের স্কয়ার অংশ শুষ্ক ছিল। উইকেটও ভেজা ছিল না। সরফরাজের জানা উচিত আমাদের শক্তিমত্তার জায়গাটা বোলিং, ব্যাটিং না।’

গতকাল টস জিতে ভারতের বিপক্ষে ফিল্ডিং নেয় সরফরাজরা। পাকিস্তানের এমন সিদ্ধান্ত নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন শোয়েব, ‘এখন টস জেতা মানেই অর্ধেক ম্যাচ জিতে যাওয়া। সেখানে টস জিতে তুমি কি করেছ? তুমি চেয়েছই যেন আমরা জিততে না পারি। আমি আবারও বলছি ঘিলুহীন অধিনায়কত্ব, পুরোপুরি বাজে ব্যবস্থাপনা।’ অধিনায়ক হিসেবে সরফরাজকে একদমই মানতে পারছেন না শোয়েব, ‘এটা পাকিস্তানের অধিনায়কের জন্য খুবই দুঃখজনক পারফরম্যান্স। এবং এইজন্যই আমি বলেছিলাম নিজের মাথাটা ব্যবহার কর। কিন্তু ও চেষ্টা করেছে কীভাবে মাথা না ব্যবহার করে খেলা যায়।’

শোয়েব আখতারের মতে, টস জিতে ব্যাটিং নিলে কিছুটা হলেও ভারতকে চাপে ফেলা যেত। ‘টস জেতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। আমরা যদি ব্যাটিং এ নেমে ২৬০ রানও করতাম ওরা রান রেটের জন্য কিছুটা চাপে থাকত। কিন্তু এটা তাদের কে বোঝাবে?’