স্পোর্টস ডেস্ক, কোচি : ক্রিকেটের প্রাক্তন দুই তারকা শচীন এবং সৌরভ। ভারতীয় ক্রিকেটের ইতিহাসে এই দুই তারকার যুগলবন্দী তৈরী করেছিল অবিস্মরণীয় সব ইতিহাস। কিন্তু হিরো ইন্ডিয়ান সুপার লীগে (আইএসএল) দুজনেই প্রতিপক্ষ। ২০১৪ সালে প্রথম আইএসএলের ফাইনালে সৌরভের কলকাতা এবং শ্চীনের কেরালা মুখোমুখি হয়েছিল এবং শেষ হাসি হেসেছিলেন দাদা। এইবারও সৌরভ এবং তার দল সেই ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি করতে চেষ্টা করবে।

এইবারের ফাইনাল হবে কোচির মাঠে। প্রায় ৫০ হাজার সমর্থকদের সমর্থনে খেলবে মাস্টার ব্লাস্টারের দল। কাজেই এইবার এটিকের জন্য কাজটা অতটা সহজ হবেনা বলেই মনে করছে ক্রিড়ামহল।
দাদা চাইবেন কলকাতা কেরলকে হারিয়ে আবারও ইতিহাস গড়ুক। কলকাতা টানা তিন বছর আইএসএলের সেমিতে খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে এবং এটি তাদের দ্বিতীয়বার ফাইনালে যাওয়া। অন্যদিকে কেরল দলের এটি দ্বিতীয় ফাইনাল হলেও গত বছরের আইএসএলে তারা সেমিফাইনালেও পৌছতে ব্যার্থ হয়েছিল।
ফাইনালে হাজার হাজার দর্শকদের তাতাতে সৌরভ শচীনের পাশাপাশি বিগ বি অমিতাভ বচ্চনও উপস্থিত থাকবেন বলে মিডিয়া সূত্রের খবর।
এমনিতেই কলকাতায় ফুটবল প্রেমীর অভাব নেই। বাংলা সবসময়ই ফুটবলের কেন্দ্রবিন্দু প্রমানিত হয়ে এসেছে। অন্যদিকে জাতীয় দলে কেরলের খুব কম খেলোয়াড় প্রতিনিধিত্ব করলেও বিগত কিছু বছরে অনেক উন্নত হয়েছে কেরল ফুটবল। যদিও এখানে আই লীগে খেলার মত কোন যোগ্য দল তৈরী হয়নি।
এখন দেখার বিষয় এটাই যে কলকাতা আবারও ইতিহাস সৃষ্টি করবে নাকী কেরল চ্যাম্পিয়ন হয়ে তাদের ফুটবলের মান আরো একধাপ এগিয়ে নেবে। অপেক্ষায় ভারতের ফুটবল প্রেমীরা।