এম এ হাকিম, টিডিএন বাংলা, বনগাঁ :  সীমান্ত শহর বনগাঁর মতিগঞ্জ ঈদগাহ ময়দান থেকে শান্তির বার্তা দেওয়া হয়েছে। বুধবার বনগাঁ শহরের প্রাণকেন্দ্র মতিগঞ্জে বাগদা রোদের পাশে অবস্থিত ঈদগাহে প্রায় পাঁচ হাজার মানুষ ঈদের জামাতে শামিল হন। নামাজ পরিচালনা করেন বনগাঁ হজরত পীর আবুবকর দারুল উলুম সিনিয়র মাদ্রাসার বিশিষ্ট শিক্ষক মাওলানা আব্দুল মাবুদ। নামাজ পরিচালনায় সহযোগিতা করেন আলহাজ্ব মাওলানা ইব্রাহিম মণ্ডল। ফুরফুরা শরীফের পীরসাহেবদের স্মৃতিবিজড়িত ঈদগাহ ময়দানে ঈদের জামাতে শামিল হওয়ার জন্য মহকুমার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষজন সকাল থেকেই এখানে উপস্থিত হন।

এদিন ঈদের নামাজে গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তনের ঘোষণা দিয়ে ঈদ-উল-ফিতরের নামাজ সকাল সাড়ে দশটার পরিবর্তে সকাল ৯টায় করা হয়। একইভাবে ঈদ-উল-আযহার নামাজও এবার থেকে সকাল ৯টায় অনুষ্ঠিত হবে বলে জানানো হয়। বহুকাল ধরে এখানে ঈদ-উল-ফিতরের নামাজ সকাল সাড়ে দশটা এবং ঈদ-উল-আযহার নামাজ সকাল দশটায় হয়ে আসছে।

সামঞ্জস্য বজায় রাখতে এবং মুসুল্লিদের দাবিকে সম্মান জানাতে এবার থেকে দুই ঈদের নামাজই সকাল ৯ টায় অনুষ্ঠিত হবে বলে যৌথভাবে ঘোষণা দেন মাওলানা আব্দুল মাবুদ ও মাওলানা ইব্রাহিম মণ্ডল। উপস্থিত মুসুল্লিরা ওই ঘোষণাকে হাত তুলে  স্বাগত জানিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

এদিন নামাজ শেষে বিশেষ মুনাজাতে পারস্পারিক শান্তি, সম্প্রীতি অক্ষুণ্ণ রাখাসহ দেশবাসীর মধ্যে ভ্রাতৃত্বের বন্ধন শক্তিশালী করার জন্য প্রার্থনা করা হয়।     ঈদের নামাজ নির্বিঘ্নে হওয়া ও মুসুল্লিদের যাতায়াতের সুবিধার জন্য ঈদগাহ ময়দান সংলগ্ন বনগাঁ-বাগদা রোডে বনগাঁ থানার পুলিশ ও সিভিক ভলেন্টিয়াররা যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করে সহযোগিতা করেন।