মিজানুর রহমান, টিডিএন বাংলা, কলকাতা : বয়স বাড়‌ছে ! বাড়‌ছে উত্তেজনা। চাকরীর পরীক্ষার্থী‌দের ব্যার্থতা আর হতাশা স্পষ্ট ক‌রে দেয় বাংলার বেকার‌ত্বের ট্রেড মার্ক।
প্রাইমারী নি‌য়ে ছাত্র ছাত্রী‌দের ম‌ধ্যে যে আতঙ্ক তৈরী হ‌য়ে‌ছে তা বোধ হয় দূর কর‌তে পা‌রে একমাত্র চূড়ান্ত মেধাতা‌লিকাই। রাজ্য সরকা‌রের উপর ভরসা রে‌খে দি‌নের পর দিন পার ক‌রে দেওয়া ছাত্র ছা‌ত্রি‌দের আশা আকাক্ষা অজানা তি‌মি‌রেই প‌ড়ে আছে!জু‌টে‌ছে কেবল হতাশা আর ক্লা‌ন্তির ছাপ।
শিক্ষা দপ্ত‌রের কথা মত জানুয়ারী‌তেই বে‌রো‌বে চূড়ান্ত প্যা‌নেল, সাংবা‌দিকদের প্র‌শ্নের উত্ত‌রে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ‌ট্ট্যোপাধ্যায় ব‌লেন এখন কোন রিয়াকশান নেই, হ‌বে শুধু অ্যাকশন ! পার্থ বাবু আর শিক্ষাদপ্ত‌রের কথার উপর সস্পূর্ন আস্থা রে‌খেই তাই টেটপাশ হবু শিক্ষক শিক্ষিকারা আর এক‌টি দিন অপেক্ষা কর‌তে চায় !
বহু প্রতীক্ষার অবশান কি আজই হ‌তে চ‌লে‌ছে ? সে সম্ভাবনাও কিন্তু উড়ি‌য়ে দেওয়া যা‌চ্ছে না ! ত‌বে যত বেলা বাড়‌বে স্পষ্ট হ‌য়ে যা‌বে পর্ষদ আজ আদেও প্যা‌নেল বে‌র কর‌বে কিনা সে বিষয়। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়, জানুয়ারিতেই নিয়োগ। সেই হিসেবে আজ বা কাল চূড়ান্ত মেধা তালিকা বেরোনোর কথা। যদি না বের হয় তবে সরকারের নিয়োগ ইচ্ছা নিয়ে ফের প্রশ্ন উঠবে।