টিডিএন বাংলা ডেস্ক: চাকুরীর স্থায়িকরন, পূর্ন শিক্ষকের মর্যাদা, চাইল্ড কেয়ার লিভ, এসএসসিতে ৩০ শতাংশ সংরক্ষণ সহ একাধিক দাবি নিয়ে রাজ্যজুড়ে আন্দোলনে নেমেছে পার্শ্ব শিক্ষক ঐক্য মঞ্চ। সেই আন্দোলনের অংশ হিসাবে কল্যাণী বাস টার্মিনালের পাশেই অবস্থান বিক্ষোভে পুলিশের লাঠিচার্জ কে কেন্দ্র করে তুমুল উত্তেজনা সৃষ্টি হলো শনিবার। এদিন রাতে কল্যাণীতে অবস্থান বিক্ষোভ করার সময় পুলিশের লাঠিতে শতাধিক পার্শ্ব শিক্ষক জখম হয়েছেন বলে দাবি পার্শ্ব শিক্ষক ঐক্য মঞ্চের নেতা তরুণ মেটের।

সূত্রের খবর, শুক্রবার বিভিন্ন দাবিদাওয়া নিয়ে বৃষ্টির মধ্যেই সল্টলেকে পার্শ্ব শিক্ষকদের আন্দোলন শুরু হয়। কিন্তু সেদিন শিক্ষামন্ত্রী ডেপুটেশন নেননি। ফলত শিক্ষকরা সল্টলেকে অবস্থান করতে চাইলে পুলিশ তাঁদের জোর করে তুলে দেয়। তারপরেই কলকাতার ধর্মতলাতে অবস্থান করার সিদ্ধান্ত নিলে সেখানেও তাদের উঠিয়ে দেওয়া হয়। একপ্রকার বাধ্য হয়েই কল্যাণীতে অবস্থান বিক্ষোভ ও আন্দোলন শুরু করেন পার্শ্ব শিক্ষকরা। অভিযোগ দিনের বেলায় আন্দোলন নিয়ে কিছু না বললেও সন্ধ্যার পর আলো নিভিয়ে পার্শ্ব শিক্ষকদের বেধড়ক মারধর করে পুলিশ। মহিলা শিক্ষিকাদের উপর লাঠিচার্জ ও শ্লীলতাহানিরও অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে।

এদিকে পার্শ্ব শিক্ষকদের আন্দোলনের উপর পুলিশের এই অমানবিক ব্যবহারের প্রতিবাদে রাজ্য জুড়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে।