প্রশান্ত দাস, টিডিএন বাংলা, মালদা : পারিবারিক বিবাদ মেটাতে বসে সালিশি সভা। আর সেই সভার পর গৃহবধূকে গলায় ফাঁস দিয়ে খুনের চেষ্টার অভিযোগ উঠলো গ্রামের দুই মাতব্বরের বিরুদ্ধে।
অভিযোগের তীর গ্রামের দুই মাতব্বরের বিরুদ্ধে। গৃহবধূর পাঁচ বছরের ছেলের তৎপরতায় প্রানে বাঁচলো ওই গৃহবধূ। ঘটনার তদন্তে মালদা মহিলা থানার পুলিশ। দুই অভিযুক্তর বিরুদ্ধে প্রাণনাশের চেষ্টা ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ দায়ের। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার ইংরেজবাজারের ফুলবেড়িয়া গ্রামে।

ওই গৃহবধূ জানান বেশ কয়েকদিন ধরে তার স্বামী সুনীল ঘোষ তার শ্বাশুড়ি চিনু ঘোষের সাথে তার বচসা চলছিলো। তার স্বামী সুনীল ঘোষ বাবার বাড়ি থেকে টাকা আনতে বলে। সেই টাকা নিয়ে আসতে অস্বীকার করায় তার স্বামীর সাথে বচসা শুরু হয়। আর এই নিয়ে গ্রামে বসানো হয় সালিশি সভা। সভার পরেই গ্রামের দুই মাতব্বর বিপ্লব দাস ও সমির ঘোষ তাকে গলায় ফাঁস দিয়ে খুনের চেষ্টা করে বলে অভিযোগ। ওই গৃহবধূ মালদা মহিলা থানার দ্বারস্থ হয়েছে। ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্তরা গা ঢাকা দিয়েছে।