সেখ শানাওয়াজ আলি, টিডিএন বাংলা, শান্তিপুর : ভগিনী নিবেদিতার সার্ধশত জন্মবর্ষ উপলক্ষে শনিবার নদীয়া জেলার শান্তিপুরে স্বামীজি-নেতাজী আইডিয়াল সোসাইটির উদ্যোগে ‘নিবেদিতা ও জাতীয় মুক্তি আন্দোলন এবং নিবেদিতার প্রাসঙ্গিকতা’ বিষয়ক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এই সভাতে বিশিষ্ট বক্তারা উক্ত বিষয়ে নানারকম বক্তব্য রাখেন।

 

 

এই সভাতে ভারতী পত্রিকার সম্পাদক অর্ক ব্যানার্জি বলেন, স্বাধীনতার পর থেকে দেশে ক্ষমতায় আসা কোন সরকারই দেশের শ্রমজীবী মানুষকে প্রকৃত স্বাধীন করতে পারেনি, আজ তাই ৯০ শতাংশ মানুষের পরিশ্রমে ১০ শতাংশ মানুষ রাজত্ব করছে। ইংরেজ দেশ ছেড়ে চলে গেলেও তাদের উত্তরাসুরীদের রেখে গেছে এদেশের মানুষকে শোষণ করতে। নোট বাতিল, জিএসটি, আধার লিংকের ঝামেলাকে তিনি এইসবের দৃষ্টান্ত রূপে বর্ণনা করেন।

 

 

তিনি আরও বলেন, আমাদের প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশের স্বাধীনতার দলিল রয়েছে কিন্তু ভারতের নেই। মুজিবর রহমান তৎকালীন সময়ে আনন্দবাজার পত্রিকায় সাক্ষাৎকার দিয়ে তা সুস্পষ্ট করে দিয়েছিলেন।

 

 

এছাড়াও তিনি দেশব্যাপী নোট বাতিল এবং জিএসটিকে মোদি সরকারের খামখেয়ালি বলে মন্তব্য করেন। এইসব সিন্ধান্তে দেশের অনেক ক্ষতি হয়েছে, এগুলো ভারতের মতো দেশের জন্য কাম্য নয় বলেও মন্তব্য করেন তিনি। তাজমহল বিতর্ক নিয়ে তিনি কেন্দ্রীয় সরকার এবং আরএসএসের অতি সম্প্রদায়িকতাকে দায়ী করেন।

এদিন বিবেকানন্দ ও নেতাজির জাতীয়তাবাদী আদর্শের প্রশ্নে তিনি বলেন, বিজেপির আদর্শ এবং নেতাজি-স্বামীজীর আদর্শ এক নয়। বিজেপি তার নোংরা সাম্প্রদিকতাকে উস্কানি দিতে নেতাজি-স্বামীজীর নাম ব্যবহার করছে। তিনি আরো বলেন, বিজেপির জাতীয়তাবাদ ভারতীয় বাদ এক নয়, বিজেপি হিন্দু জাতীয়তাবাদকে ভারতীয় জাতীয়তাবাদের সাথে ঘুলিয়ে ফেলেছে। এইসব আদর্শ কখনই বিবেকানন্দের আদর্শ হতে পারেনা। এদেশের স্বাধীনতার জন্য চন্দ্রশেখর আজাদ, ভগৎ সিং, আজিমুল্লা খান, আস্ফাকুল্লাহ খানের সকলের মিলিত প্রচেষ্টা অবিস্মরণীয়।