টিডিএন বাংলা ডেস্ক: একই ধারা অব্যাহত রাখলেন অমিত শাহ। বাংলায় এসে হিন্দুত্বের রাজনীতি করলেন বিজেপি সভাপতি। নির্বাচন কমিশনকে ডোন্ট কেয়ার করে টেনে আনলেন বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইক প্রসঙ্গ।

উন্নয়নের কথা ফেরি করে ক্ষমতায় এসেছিলেন মোদী। কিন্তু বিজেপি যে তাদের হিন্দুত্বের লাইন থেকে সরেনি, তা আজ আরো একবার প্রমাণ হয়ে গেল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যাকে নিশানা করতে গিয়ে তিনি হাওড়া থেকে বলেন, ইমাম ভাতা দেওয়া হলে, কেন পূজারীদের ভাতা দেওয়া হবে না? গোমাতার হয়েও সওয়াল করেন অমিত।

প্রশ্ন গোমাতা, হিন্দুত্ব-এসবই কি ভারতে একমাত্র পরিচয়? গোমাতার সেবায় বিজেপি নিযুক্ত থাকতে পারে। কিন্তু ভারত বহুত্ববাদের দেশ। এখানে সব ধর্মের সমান অধিকার। অমিত শাহ এদিন বাংলায় দাঁড়িয়ে ধর্মীয় বিভাজনের বার্তাই দিলেন না? প্রশ্ন উঠছে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগে বিভিন্ন সভায় বলেছেন বিজেপি ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করে। সেটাই তো এদিন প্রমাণ করে ছাড়লেন অমিত।

নির্বাচন কমিশন বারবার বলেছেন, সেনাকে প্রচারে নিয়ে আসা যাবে না। বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইক নিয়ে মোদী সরকারের সাফল্য বারবার তুলে ধরেছেন তাঁর ব্রিগেডের সদস্যরা। এদিন সেই ধারা অব্যাহত রাখলেন অমিত শাহ। বললেন পুলিওয়ামা হামলার পর মোদীর নির্দেশ ভারতীয় বায়ুসেনা পাকিস্তানের অন্দরে ঢুকে জঙ্গি ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিয়ে এসেছে। বালাকোট এয়ার স্ট্রাইক নিয়ে প্রশ্নের অবকাশ আছে। সবকিছু ছাড়িয়ে মোদী সরকারের কৃতিত্ব দাবি করতে গিয়ে সেনাকে টেনে আনলেন অমিত। বিরোধীরা যে চুপ করে থাকবে না, তা বলাই বাহুল্য।