টিডিএন বাংলা ডেস্ক: অর্জুন সিং এর তৃণমূল ত্যাগের পর মমতাকে একহাত নিলেন রাজ্যের দাপুটে কংগ্রেস নেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী। বৃস্পতিবার তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন ভাটপাড়ার দীর্ঘদিনের বিধায়ক এবং পুরপ্রধান ছিলেন অর্জুন সিং।

এবার তিনি সাংসদ হওয়ার ইচ্ছে প্রকাশ করলেও গত দু’বারের সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদীকেই ফের প্রার্থী করেছেন মমতা। অর্জুন সিং’কে দলের বড় দায়িত্ব এবং রাজ্যের মন্ত্রিত্বের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল । কিন্তু তিনি তাতে সন্তুষ্ট হননি। যার জেরে দল ছাড়লেন তিনি।

আর এই দলত্যাগের ঘটনাকেই ‘দিদি’র রাজনৈতিক পাপের ফল বললেন অধীর রঞ্জন। এই দল বদলকে ‘নোংরা খেলা’ বলে উল্লেখ করেছেন অধীর রঞ্জন চৌধুরী। অর্জুন সিং-এর বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরে নিজের ফেসবুক পেজে নিজের মন্তব্য তুলে ধরেছেন প্রদেশ কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি। তিনি লিখেছেন, ‘যে রাজনৈতিক নোংরা খেলায় ‘দিদি’ কংগ্রেস দল ভাঙলো, সেই একই খেলায় ‘দিদি’র দল ভাঙছে বিজেপি।’ সেই সঙ্গে তিনি আরও লিখেছেন, ‘আমি অনেক আগে বলেছিলাম যে ‘দিদি’কেও একদিন একই খেলার শিকার হতে হবে। History repeats itself বলবো না, বলবো Poetic Justice। ‘দিদি’ আপনার রাজনৈতিক পাপ আপনাকে ছাড়বে না।’

এই দল বদলের খেলা রাজ্যে নতুন কিছু নয়। ২০১১ সালে রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের সরকার প্রতিষ্ঠা হওয়ার পরে বাম-কংগ্রেসের অনেক বিধায়ক ঘাস ফুল শিবিরে নাম লিখিয়েছিলেন। যার নেপথ্যে ছিলেন তৃণমূলের একদা দুই নম্বর ব্যক্তি মুকুল রায়। এই একই উপায়ে উত্তর-পূর্বের একাধিক রাজ্যে খাতা খুলেছিল তৃণমূল। ত্রিপুরায় প্রধান বিরোধী দল হিসেবেও উঠে এসেছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল। যদিও মুকুল রায়ের দলবদলের পরে হিসেব বদলে গিয়েছে। এখন বিজেপিতে যোগদানের পর তৃণমূলকে ভাঙতে শুরু করেছেন মুকুল রায়।