নিজস্ব প্রতিনিধি, টিডিএন বাংলা, মুর্শিদাবাদ : ফারাক্কার লালমাটি মোড় থেকে বটতলা পর্যন্ত রাস্তার বেহাল দশা দীর্ঘদিনের। স্কুল পড়ুয়া সহ নিত্যযাত্রীদের ভোগান্তি ছিল নিত্যদিনের। সমস্যার কথা জানিয়ে চলতি মাসেই ফারাক্কার বিডিওর কাছে ২কিমি ঐ রাস্তাটি মেরামতির আবেদন জানান মহেশপুরের শিক্ষক জানে আমল।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, রাস্তাটি কয়েক মাস যাবৎ জরাজীর্ণ ও খানাখন্দ অবস্থায় ছিল। যে কোন সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারত। এই খানা খন্দের কারন ভারী যানবাহন। ফারাক্কা থেকে ধূলিয়ান রেলওয়ের কাজ চলছে যার জেরে এই রাস্তায় ভারী গাড়ি গিয়ে রাস্তায় বড়বড় গর্ত তৈরী হয়।

নূর জাহানারা স্মৃতি হাই মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক জানে আলম টিডিএন বাংলাকে বলেন, এই রাস্তায় ছাত্রছাত্রী, নিত্যযাত্রী সহ আমরা নিয়মিত যাতায়াত করি। রাস্তার বেহাল দশার কথা জানিয়ে বিডিও মহাশয়ের দরবারে আবেদন ও সাক্ষাৎ করি। উনি কথা দিয়েছিলেন রাস্তাটি ঠিক করে দেবেন। ফলস্বরূপ গত ১৫নভেম্বরে থেকে রাস্তাটি মেরামতির কাজ চলছে। বিডিওর তৎপরতায় মুখে হাসি ফুটেছে এলাকাবাসীর।

বটতলার বিশিষ্ট চিকিৎসক আলহাজ আব্দুল হাই ও মাদ্রাসার শিক্ষক মহ: মেহবুব আলম জানালেন, ভারী ডাম্পার গিয়ে রাস্তাটি খালডোব হয়ে গিয়েছিল। এই রাস্তায় অর্জুনপুর থেকে ধূলিয়ানে অনেক গাড়ি ও সাধারণ মানুষ যাতায়াত করে। সবার অসুবিধা হচ্ছিল। শিক্ষক জানে আলম বিষয়টি ফারাক্কার বিডিওর নজরে আনেন। বিডিও দ্রুত রাস্তাটি মেরামতির ব্যবস্থা করেছেন। স্বভাবতই খুশি আমরা।

নবম শ্রেণীর ছাত্রী রিজিয়া খাতুনের কথায়, রাস্তাটির যা অবস্থা ছিল তাতে সাইকেল চালিয়ে মাদ্রাসা যেতে ভয় পেতাম। এখন রাস্তায় কাজ হচ্ছে, মাদ্রাসায় যেতে আর ভয় নেই।