নিজস্ব প্রতিনিধি, টিডিএন বাংলা, ফারাক্কা : মুর্শিদাবাদের গঙ্গা ভাঙ্গন কবলিত প্রত্যন্ত পিছিয়ে পড়া গ্রাম মহেশপুর। ১৪ই নভেম্বর শিশুদিবসের দিন থেকে তিন দিনব্যাপী প্রথম বার্ষিক পত্রিকা প্রকাশ এবং শিশু শিক্ষা ও স্বাস্থ্য উৎসব পালন করছে ঐ গ্রামের নূর জাহানারা স্মৃতি হাই মাদ্রাসা। শিক্ষা স্বাস্থ্য ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে মাদ্রাসার সার্বিক অগ্রগতি দেখে এদিন সন্তোষ প্রকাশ করলেন রাজ্যের শ্রম প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন।

এদিন নূর জাহানারা স্মৃতি হাই মাদ্রাসার ‘শিশু শিক্ষা ও স্বাস্থ্য উৎসবে’র উদ্বোধন করেন জাকির হোসেন। উদ্বোধনী ভাষণে মন্ত্রী জাকির হোসেন বলেন, “সংস্কৃতি আমাদের শক্তি। আর স্বাস্থ্য-বল-সময় সংস্কৃতিমনস্ক। শিক্ষা স্বাস্থ্য ও সাংস্কৃতিক চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে নূর জাহানারা স্মৃতি হাই মাদ্রাসা একদিন দেশে মুখ উজ্জ্বল করবে।” উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশিষ্টদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিধায়ক মাইনুল হক, সহকারী বিদ্যালয় পরিদর্শক গৌতম বন্দ্যোপাধ্যায়, মুস্তাফিজুর রহমান , ফারাক্কা ব্লক সভাপতি আমজুমান আর প্রমুখ।

উৎসবের আহ্বায়ক মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক জানে আলম ও সম্পাদক খলিলুর রহমান। প্রথম দিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চলে বক্তব্য, আবৃত্তি, নাচ, গান, নাটক প্রত্রিকা প্রকাশ ও প্রদর্শনী উদ্বোধন অনুষ্ঠান।

মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের জাঁকজমকপূর্ণ গ্রামীণ সংস্কৃতির পরিবেশনার পাশাপাশি ছিল আকর্ষণীয় নানান প্রদর্শনী। মাদ্রাসার বিভিন্ন কাজের খতিয়ান ও তার সাফল্যের চিত্ৰ, নমুনা, পড়ুয়াদের হাতের কাজ ও বিজ্ঞান চর্চা প্রদর্শনীতে স্থান পায়।

প্রধান শিক্ষকের সম্পাদনায় মাদ্রাসার প্ৰথম বার্ষিক পত্রিকা ‘আন নূর’ এর আত্মপ্রকাশ ঘটে। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মাদ্রাসা শিক্ষা অধিকার এর অধিকর্তা আবিদ হুসেন এর হাত দিয়ে পত্রিকার উদ্বোধন হয়। মহেশপুরে নানা তথ্যসহ পড়ুয়া ও শিক্ষকদের লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ব্যক্তিরদের শুভেচ্ছা বার্তায় সমৃদ্ধ হয় ‘আন নূর’।

ফারাক্কা ব্লকের বিডিও আবুল আলা মাবুদ আনসার বলেন, শিক্ষক জানে আলমের উদ্যোগে আজকের এই উৎসব খুবই তাৎপর্যপূর্ণ। শিক্ষার পরিবেশ ফিরিয়ে এনে এলাকায় জনসচেতনতা বাড়াতে প্রধান শিক্ষকের ভূমিকা অনস্বীকার্য। ব্লকের অন্যান্য বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকরা এটা অনুকরণ করলে ফারাক্কা অচিরেই জেলার মডেল হয়ে উঠবে তাতে কোন সন্দেহ নেই।’

প্রধান শিক্ষক জানে আলম তাঁর কর্মজীবনের সুদীর্ঘ অভিজ্ঞতা তুলে ধরে বলেন, জাতি গঠনের মূল উপাদান হলো শিশু শিক্ষা ও স্বাস্থ্য। শিক্ষার উদ্দেশ্য হলো সুস্থ্য শরীরে একটি সুস্থ মনকে বিকশিত করা । শিক্ষা ও স্বাস্থ্যর পশ্চাৎ ভূমিতে আমার শিক্ষালয় অবস্থিত। এই অঞ্চলের মানুষের ভাবধারা আবেগ উছ্বাসের সুস্থতা ও পরিচ্ছন্নতা বিধানের লক্ষ্যেই তিনদিনের এই অনুষ্ঠানের আয়োজন।

পশ্চিমবঙ্গ মাদ্রাসা শিক্ষা পর্ষদের সচিব রেজাউল করিম তরফদার বলেন, স্কুলছুট ও শিশু শ্রমিকদের বিদ্যালয়ের আঙিনায় এনে নূর জাহানারা স্মৃতি হাই মাদ্রাসা সমাজ ও রাজ্যে সুনাম অর্জন করেছে। এলাকার মানুষ শিক্ষকদের পাশে আছেন। আমরাও সর্বতভাবে সাহায্য ও পরামর্শর হাত বাড়িয়ে দিয়েছি।

অনুষ্ঠানের অংশ হিসাবে আগামী কাল ডিডিএইচ নূর পরিবারের সৌজন্যে মাদ্রাসার পড়ুয়া ও অভিভাবকদের ফ্রী হেলথ চেকআপ এর ব্যবস্থা থাকবে বলে জানা গেছে। ডিডিএইচ শেখ নূরে আলম ও শাহনাজ রৌশন সহ একাধিক ডাক্তার ও ফারাক্কা ব্লক হসপিটাল ও অর্জুনপুর গ্রামীণ হসপিটালে ডাক্তাররা চিকিৎসার সেবায় নিয়োজিত থাকবেন। অনুষ্ঠানের শেষ দিন সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহণ করবে মাদ্রাসার পড়ুয়ারা। গঙ্গা ভাঙ্গন কবলিত প্রত্যন্ত মহেশনগরের উৎসব মুখর এই অনুষ্ঠান দেখতে এদিন মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে জড়ো হয় অগণিত মানুষ।