নিজস্ব প্রতিনিধি, টিডিএন বাংলা, মালদা:  এক বিজেপি কর্মীকে মারধর ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানোর অভিযোগ উঠল গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল সদস্য ও তার দলবলের বিরুদ্ধে। জখম অবস্থায় ওই বিজেপি কর্মী মহাদেব মণ্ডল মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনাটি ঘটেছে বৈষ্ণবনগর থানার কুম্ভিরা গ্রাম পঞ্চায়েতের শুখপাড়া গ্রামে। ঘটনার লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে বৈষ্ণবনগর থানায়। গ্রাম্য বিবাদের জেরে ঘটনা, এতে রাজনীতির কোনো যোগ নেই বলে দাবি জেলা তৃণমূল নেতৃত্বের।


বুধবার বাজার থেকে ফেরার পথে আক্রান্ত হন বিজেপি কর্মী মহাদেব মণ্ডল। স্বামীকে বাঁচাতে গেলে স্ত্রীকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। পঞ্চায়েত সদস্য মিঠুন সাহা দলবল নিয়ে মহাদেব মন্ডল এর উপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ। বাঁশ লাঠি দিয়ে মারধর করা হয় এবং হাসুয়া দিয়ে কোপানো হয় বলে অভিযোগ। স্বামীকে বাঁচাতে গেলে স্ত্রী অর্চনা মন্ডল কে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ।


স্থানীয়রা উদ্ধার করে মহাদেব মণ্ডল কে প্রথমে গ্রামীণ হাসপাতাল পরে মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। অর্চনা মন্ডল এর অভিযোগ গ্রামে ট্রান্সফরমার মিঠুন সাহার সাথে বিবাদ বাধে মহাদেব মণ্ডলের। সেই কারণেই এই হামলা বলে তার অভিযোগ। ঘটনার লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে বৈষ্ণবনগর থানায়। যদিও এই ঘটনার পিছনে রাজনীতির কোনো যোগ নেই বলে দাবি জেলা তৃণমূল নেতৃত্বের। গ্রাম্য বিবাদের জেরে এই ঘটনা দাবি তৃণমূলের।