টিডিএন বাংলা ডেস্ক: করোনার থাবায় নাজেহাল দেশ। করোনা মোকাবিলায় পুরো দেশ ২১ দিনের জন্য লকডাউন করেছেন প্রধান মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। গোমূত্র পান না করে বৈজ্ঞানিক উপায়ে করোনা মোকাবিলার কথা বলেছেন খোদ প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু মোদির সেই নির্দেশকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে করোনা থামাতে যজ্ঞের আয়োজন করল খোদ বিজেপিই। তাও আবার খাস কলকাতায়। কিছুদিন আগে এমনই ভাবে করোনা মোকাবিলায় কলকাতার জোড়াসাঁকোতে এক খাটালে গোমাতার পূজা গোমূত্র পান করানো হয়েছিল বিজেপিরই পক্ষ থেকে। এবার সেই কলকাতাতেই করোনা থেকে মুক্তি পেতে যজ্ঞের আয়োজন করল বিজেপির নেতা-কর্মীরা।

ঘটনাটি কলকাতার বেলেঘাটার কাদাপাড়া এলাকায় ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের। সেখানকার একটি মন্দিরে এই যজ্ঞের আয়োজন করেন বিজেপি নেতা-কর্মীরা। এমনকি মন্দিরের বাইরে করোনা নিবারণে যজ্ঞ বলে কাগজও সাঁটিয়ে দেওয়া হয়েছে। বৈজ্ঞানিক উপায়ে করোনা মোকাবিলার কথা বললেও বিজেপি সমর্থকের দাবি, “পুজো করতে বাধাও দেননি প্রধানমন্ত্রী। তাই এই আয়োজন।”

কিন্তু এতে কি করোনা মোকাবিলা সম্ভব? প্রশ্নের উত্তরে আয়োজক বিজেপি সমর্থক ওম প্রকাশ বলেন, “সনাতন হিন্দু ধর্মে এই ধরনের সমস্যা হলে যজ্ঞের বিধান দেওয়া আছে। তাই এই রোগ নিরাময় হবেই।”

প্রশ্ন উঠছে, এমন অন্ধবিশ্বাস মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে অনেকেই বাড়ির বাইরে বেরিয়ে পরতে পারেন। করোনার চিকিৎসা না করে অন্ধবিশ্বাস নিয়ে চললে, সঙ্কট আরও বাড়বে বলেই মনে করছেন বিশিষ্টরা।